বিজেপির প্রতি মোহভঙ্গ, পদ্ম ছেড়ে ঘাসফুলে, গ্রাম পঞ্চায়েত দখল নিল তৃনমূল

18

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ লোকসভা নির্বাচনের তৃনমূল খানিকটা দুর্বল হয়ে পরলে তাতে প্রতীকে জয়ী হওয়া বেশ কিছু গ্রাম পঞ্চায়েত পঞ্চায়েত সমিতি গেরুয়া শিবিরে যোগদান করে বাঁকুড়ার ওন্দা ব্লকের চুড়ামনিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিরা। আর তার দুই মাস কাটতে না কাটতে ফের সেই জনপ্রতিনিধিদের একটা বড় অংশ বিজেপির প্রতি মোহভঙ্গ হয়ে তৃনমুলেই যোগদান করেন। তার ফলে ফের তৃনমুলের হাতে চলে এল চুড়ামনিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে।

প্রসঙ্গত,গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বাঁকুড়ার ওন্দা ব্লকের চুড়ামনিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মোট নটি আসনেই জয়লাভ করেছিল তৃনমুল বিনা-প্রতিদ্বন্দিতায়। লোকসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃনমুলকে হারিয়ে বিজেপি জয়লাভ করতেই চুড়ামনিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের নির্বাচিত সাত তৃনমুল সদস্য আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগ দেন বিজেপিতে। পঞ্চায়েতে সংখ্যালঘু হওয়ার জন্য পঞ্চায়েতটি হাতছাড়া হয় তৃনমুলের। কিন্তু সেই ঘটনার দু মাস যেতে না যেতেই বিজেপি তে যাওয়া পঞ্চায়েত সদস্যদের একটা বড় অংশ ফিরে গেল তৃনমুলে ।

সোমবার বাঁকুড়ার তৃনমুল ভবনে সদ্য বিজেপিতে যোগদান করেছিল এমন চার জনপ্রতিনিধি ফের তৃনমুলের পতাকা কাঁধে তুলে তৃনমুলে যোগ দেন। এর ফলে ৯ সদস্য বিশিষ্ট চুড়ামনিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট ৬টি আসন তৃনমুলের দখলে গেল। পঞ্চায়েতের চারজন জনপ্রতিনিধির একবার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর ফের তৃনমুলে যোগদানের এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৃনমুল-বিজেপি পরস্পরের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ।