ম্যাচ গড়াপেটার দায়ে ১৭ মাস জেল পাক ক্রিকেটারের!

201

ওয়েব ডেস্ক, ৮ ফেব্রুয়ারিঃ গড়াপেটার ঘটনা একেবারেই নতুন কিছু নয় পাকিস্তান ক্রিকেটে।বিভিন্ন সময়ে প্রথম সারির একাধিক তারকা গড়াপেটায় জড়িয়েছেন।অনেকে শাস্তিও পেয়েছেন।কাউকে আজীবন নির্বাসিত হতে হয়েছে, কেউ হয়েছেন দেশছাড়া। কিন্তু, তাতেও শিক্ষা হচ্ছে না পাক ক্রিকেটারদের।ফের পাকিস্তান ক্রিকেটকে কালিমালিপ্ত করে গড়াপেটার অভিযোগে জেলে গেলেন তিন ক্রিকেটার।এদের মধ্যে আবার একজন আন্তর্জাতিক স্তরে রীতিমতো প্রতিষ্ঠিত ছিলেন।স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে একসময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দাপিয়ে খেলা নাসির জামশেদকে ১৭ মাসের জন্য কারাবাসে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেদেশের একটি আদালত।৩৩ বছরের তারকা ক্রিকেটার পাক বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ ইউসুফ আনোয়ার ও মহম্মদ ইজাজের সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছিল।প্রথমে নিজের কীর্তির কথা স্বীকার করেননি তিনি।

দু-বছর আগে পাকিস্তান সুপার লিগ চলাকালীন দুবাইয়ে পেশওয়ার জালমি ও ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ম্যাচে সতীর্থদের পারফরম্য়ান্স ড্রপ করার কথা বলেছিলেন। তবে গত বছর ডিসেম্বরে জামশেদ ম্যাঞ্চেস্টারের কোর্টে নিজের দোষের কথা স্বীকার করেন।ন্যাশানাল ক্রাইম এজেন্সির তদন্তের মুখে জানিয়ে দেন খারাপ পারফরম্যান্সের বিনিময়ে সতীর্থদের অর্থের প্রলোভন দেখিয়েছিলেন তিনি।২০১৮-র আগস্টেই জামশেদকে ১০ বছরের জন্য নির্বাসনে পাঠানো হয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের তরফে।এবার সেই শাস্তির তালিকায় সতেরো মাসের হাজতবাসের শাস্তিও জুটল। তাঁর কুকর্মের দুই সতীর্থ আনোয়ার ও ইজাজের ক্ষেত্রে যতাক্রমে ৪০ ও ৩০ মাসের জেলবাস নির্দেশ মিলেছিল।ম্যাঞ্চেস্টারের ক্রাউন কোর্টের তরফে জামশেদকে ১৭ মাসের জেলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দেশের হয়ে নাসির জামশেদ ২টি টেস্ট, ৪৮টি ওডিআই ও ১৮টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছে। ওডিআইয়ে ৮টি ও টি-২০টি ২টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে।