ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের শীতলখুচিতে বিএসএফ জওয়ানকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩ পাচারকারী, উদ্ধার আগ্নেয়াস্ত্র

1487

মাথাভাঙা, ২৬ মেঃ বিএসএফ জওয়ানকে গুলি করে পালিয়ে যাওয়া গরু পাচারকারীদের বিরুদ্ধে তদন্তে নেমে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে একটি সেভেনএমএম পিস্তল ও বেশ কিছু কার্তুজ। শীতলখুচি থানার পুলিশ ওই সফলতা পায়। ইতিমধ্যেই ধৃতদের মাথাভাঙা মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে। পুলিশ তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে ৪ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শীতলখুচি থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই ঘটনায় ধৃতরা হলেন, গ্রেপ্তার হওয়া তিনজন টিটুল মিয়া, মিস্টার মিয়া ওরফে জাহাঙ্গীর আলম এবং নুর কুতুবুল মিয়া। ধৃতরা শীতলখুচি এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে ১৪৩ ও ৩০৭ ধারায় মামলা করা হয়েছে।

চলতি মাসের ২০ তারিখ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের শীতলখুচি ব্লকের পুটিয়া বারো মাসিয়া এলাকায় কাঁটা তাঁরের বেড়া কেটে গরু পাচার করার চেষ্টা করে দুষ্কৃতিদের একটি দল। ওই সময় ১০০ নম্বর ব্যাটেলিয়নের জওয়ান চন্দ্র ভগত গরু পাচারকারীদের বাধা দিতে গেলে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর ভাবে আহত হন ওই বিএসএফ জওয়ান। তাঁকে কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

ওই ঘটনা নিয়ে শীতলখুচি থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরেই পুলিশ তদন্ত শুরু করে। তদন্ত নেমেই ঘটনার ৩ দিনের মাথায় ওই ৩ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।