পথ দুর্ঘটনায় প্রান গেল শিশুর, ঘাতক গাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে পথ অবরোধ উত্তেজিত জনতার

16

নিজস্ব সংবাদদাতা, বালুরঘাটঃ পুলিশি ব্যর্থতায় আন্তর্জাতিক বহির্বাণিজ্যের ওভারলোডিং গাড়ি রাস্তা দখল করে থাকায় পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এক শিশুর। রবিবার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি ব্লকের ত্রিমোহিনী এলাকায় এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আহত হয়েছেন শিশুটির মা ও বাবাও। ঘটনার প্রতিবাদে ঘাতক গাড়িটিতে ব্যাপক ভাঙচুর চালান উত্তেজিত জনতা। দীর্ঘক্ষন অবরোধ করে রাখেন ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক। পরিস্থিতি সামাল দিতে হাতজোড় করে ক্ষমা চেয়েছেন হিলি থানার ওসি প্রীতম সিং। ঘাতক গাড়িকে আটক করে ঘটনার তদন্তে নেমেছে হিলি থানার পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, বাড়িতে যাওয়ার জন্য নিজের মোটরবাইকে স্ত্রী সহ শিশু পুত্রকে নিয়ে রওনা দিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। অভিযোগ হিলির রাস্তা জুড়ে দীর্ঘ এলাকায় এক পাশ দখল করে অবৈধ ভাবে দাঁড়িয়ে থাকে আন্তর্জাতিক বহির্বাণিজ্যের ওভারলোডিং গাড়ি। যার কারণে ত্রিমোহনী এলাকায় সামনে একটি গাড়ি দেখে মোটরবাইক দাঁড় করাতে হয়েছিল ওই ব্যক্তিকে।

সেই সময় পেছন থেকে আসা দ্রুতগতির একটি মুরগি বোঝাই পিকআপ ভ্যান তাদের ধাক্কা মারলো মোটর বাইক থেকে ছিটকে পড়ে তারা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের বালুরঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মহিলাকে রেফার করা হয়েছে মালদা মেডিক্যাল কলেজে।

এদিকে ঘটনার পরেই পুলিশি ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে ঘাতক গাড়িটিকে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় উত্তেজিত জনতা। একই সাথে ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন সকলেই। ঘটনার খবর পেয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় পৌঁছালে থানার ওসি প্রীতম সিং। পুলিশকে দেখে নিজেদের ক্ষোভ উগড়ে দেন বাসিন্দারা। পরিস্থিতি বুঝে হাতজোড় করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন হিলি থানার ওসি।

স্থানীয় বাসিন্দা দীপঙ্কর ঘোষ, জয়ন্ত প্রামাণিক এবং আক্রান্তের পরিবারের সদস্য নিতাই সরকাররা জানিয়েছেন,পুলিশের ব্যর্থতায় হিলির দীর্ঘ রাস্তা জুড়ে অবৈধ ভাবে দাঁড়িয়ে থাকে ওভারলোডিং ট্রাক গুলি। যার কারনে প্রায়শই ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। এদিনও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে। অকালেই নিজেদের সন্তানকে হারালো একটি পরিবার।

হিলি থানার ওসি প্রীতম সিং জানিয়েছেন, ঘাতক গাড়িটিকে আটক করা হয়েছে। রাস্তায় যাতে অবৈধ ভাবে গাড়ি দাঁড়িয়ে না থাকে সে বিষয়টি দেখা হচ্ছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।