পাঁচ’শ বছরের পুরনো বট বৃক্ষই মায়ের প্রতিরূপ হাসনাবাদ রোজিপুরের

33

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ সামনেই আসছে জাগ্রত কার্ত্তিকী অমাবস‍্যা।  যেদিন সারা বাংলা তথা ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রান্ত মায়ের শক্তির আরাধনা। সেরকমই বসিরহাটের বিভিন্ন প্রান্তের কিছু ঐতিহাসিক কালীপূজা এখনও ধারে ও ভারে সমস্তরকম রীতি ও আচার মেনে তাদের ঐতিহ্য ও ইতিহাসকে বহন করে চলেছে। তেমনি একটি বিখ্যাত কালীপূজা হল হাসনাবাদ রোজিপুর রাখালতলার কালীপূজা।

জানা গেছে, এটি বসিরহাট মহকুমার টাকী পৌরসভার ১৩ নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত। এই পুজো চৈতন‍্য মহাপ্রভুর জন্মের আগে থেকে একটি বট গাছের তলায় রূপার তৈরি ঘটকে মাকালী রুপে পূজা করা হত। তৎকালীন এই দেবীথানের পাশ দিয়ে বয়ে যেত একটি খাল, যা গিয়ে মেশে ইছামতী নদীতে।

পরবর্তীকালে কোনও এক বিশেষ কারণে এই দেবীঘট ভেসে চলে আসে বর্তমান টাকী কুলেশ্বরী কালীবাড়ি সংলগ্ন খালের পাড়ে। তৎকালীন রায়চৌধুরী পরিবারের সদস‍্যরা সেই দেবীঘট স্থাপন করেন টাকী কুলেশ্বরী কালীবাড়িতে। তবে এখনও সেই রাখালতলায় বটগাছকে দেবী জ্ঞানে নতুন শাড়ি পরিয়ে সমস্ত রকম আচার উপাচার সাহচর্যে পূজা সম্পন্ন হয়। অমাবস‍্যার তিথি পড়লে এখানে টাকী-হাসনাবাদ শহরে সর্বপ্রথম কালীপূজা শুরু হয়, তারপর সমস্ত টাকী হাসনাবাদ শহর জুড়ে শুরু হয় মাতৃশক্তির আরাধনা। রাজ‍্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মনষ্কামনা পূর্ণ করতে মানুষ ছুটে আসেএই জাগ্রত কালীমাতার আরাধনায়।