নেশা করতে গিয়ে স্থানীয়দের হাতে মার খেল ৬ যুবক

274

বিশ্বজিৎ মণ্ডল,মালদাঃ নেশা করতে গিয়ে এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়ল ৭ মাদকাসক্ত যুবক। তাঁদের আটক করে খোঁজ মেলে মাদক বিক্রেতাও। দোকান মালিক সহ ওই যুবকদের আজ মারধর করে স্থানীয় বাসিন্দারা ৷ পরে তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় ৷ ঘটনাটি ঘটেছে, শনিবার পুরাতন মালদা পুরসভার অন্তর্গত মোকাতিপুর এলাকায় ৷ যদিও এই ঘটনায় স্থানীয়রা এখনো মালদা থানার পুলিশের কাছে কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি ৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মোকাতিপুর এলাকায় এক দুর্গামণ্ডপের পিছনে এক ঘন আমবাগান রয়েছে ৷ অভিযোগ, প্রায় ২-৩ বছর ধরে ওই বাগানে বসছে হেরোইন ও ব্রাউন শ্যুগারের মতো মারাত্মক নেশার আসর জাকিয়ে বসেছিল ৷ প্রথমে এলাকার ছেলেরাই এই নেশা করত ৷ বর্তমানে সেখানে পা রাখতে শুরু করেছে ভিন্ন এলাকার যুবকরাও ৷ প্রতিদিনই সেখানে চলছে এই নেশার কারবার ৷ এর ফলে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা ৷ এলাকার মেয়েরা দিনের আলোতেও বাড়ির বাইরে বেরোতে ভয় পাচ্ছে ৷ সবমিলিয়ে একালা বাসী আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। পাশাপাশি ওই এলাকায় চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা বেড়ে গিয়েছে বলেও জানান স্থানীয়রা। তাই বেশ কিছুদিন ধরেই এইসব নেশার কারবারিদের ধরার চেষ্টা চালাচ্ছিল স্থানীয়রা ৷

ঘটনাস্থলে পুলিশ

এদিন দুপুরে ৬ বহিরাগত যুবক একটি টোটোতে ওই বাগানের কাছে পৌঁছোয়৷ টোটো রেখে তারা বাগানের ভিতর চলে যায়৷ কিছুক্ষণ পর স্থানীয়রা বাগানে গিয়ে দেখতে পায়, সেখানে তখন চলছে জমজমাট হেরোইনের আসর ৷ হাতেনাতে ধরে ফেলা হয় ৭ যুবককে ৷ ওই যুবকেরা মঙ্গলবাড়ি, মৌলপুর, ধোবাপাড়া প্রভৃতি এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে ৷ জেরায় মুখে মিঠুন মণ্ডল জানান, সে ওই এলাকা থেকে হেরোইন কিনত ৷ জেরায় মুখে নিজের কৃতকর্মের কথা স্বীকার করে নেয় যুবকেরা ৷ এরপরেই তাঁদের দড়ি দিয়ে বেঁধে শুরু হয় মারধর ৷ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে মালদা থানার পুলিশ। পরে তাঁরা এলে ওই ৬ জনকে স্থানীয়দের হাত থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় ৷