কোচবিহারকে হেরিটেজ ঘোষণার লক্ষ্যে বৈঠক প্রশাসনের

231

কোচবিহার, ৯ জুলাইঃ  কোচবিহার শহর বরাবরই রাজার শহর নামেই পরিচিত। এই শহরের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে শতাধিক বছরের ইতিহাস। এই প্রাচীন শহরকে হেরিটেজ ঘোষণার দাবি উঠেছিল বহু বছর আগে। কয়েক বছর আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোচবিহারের দাঁড়িয়ে সেই দাবির সঙ্গে একমত হন। তার পরের কয়েক বছর ধরে চলছিল সেই হেরিটেজ ঘোষণার অপেক্ষা। সম্প্রতি রাজ্য সরকারের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়, সেখানে শহরের ১৫৫টি নিদর্শনকে হেরিটেজ মর্যাদা দেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। তার মধ্যে যেমন রয়েছে রাজবাড়ি, তেমনই উঠে এসেছে সাগরদিঘির নাম।

কোচবিহারকে হেরিটেজ ঘোষানার লক্ষ্যে বৈঠক প্রশাসনের। আজ কোচবিহার ল্যান্স ডাউন হলে জেলা শাসক পবন কাদিয়ানের সভাপতিত্বে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। সেখানে জেলা শাসক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলার অতিরিক্ত জেলা শাসক, রাজ্যের প্রাক্তন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্র নাথ ঘোষ, কোচবিহার জেলা প্রাক্তন তৃনমূল সভাপতি বিনয় কৃষ্ণ বর্মণ সহ অন্ন্যানরা।

বৈঠক শেষে কোচবিহারের জেলা শাসক পবন কাদিয়ান বলেন, আজকে কোচবিহার জেলা হেরিটেজ কমিটির বৈঠক হয়, গত বৈঠক ফেব্রুয়ারি মাসে হয়ে ছিল, কিন্তু তার পর ভোট, করোনার জন্য আর সেরকম ভাবে কোন বৈঠক সংগঠিত করা হয়ে ওঠেনি। তিনি আরও বলে, কিছুদিন আগে হেরিটেজে শামিল হওয়া ৪১টি জায়গার নাম রাজ্য কমিটিকে পাঠানো হয়েছিল তা প্রস্তাবিত হয়ে এসেছে, সেগুলির কাজ অতি দ্রুত শুরু করার কথা বলা হয়েছে। তা ছাড়াও একটি হেরিটেজ লোগো তৈরি করা হয়েছিল সেটাকেও আজকে সংশোধন করা হল এবং যেই ৪১ টি জায়গার নাম প্রস্তাবিত হয়ে আসেছে সেগুলি কিছু কিছু জায়গা সাধারণ মানুষ অবৈধ ভাবে কব্জা করে রেখেছে সেগুলিকেও অধিগ্রহণ করে সে সব জায়গায় হেরিটেজ জায়গা বলে চিহ্নিত করে বোর্ড লাগানো হবে।

তিনি আরও বলেন,  “ইতিমধ্যে সাগরদিঘি, বৈরাগীদিঘি সংস্কারের কাজ শুরু হয়ে গেছে এবং সেই দিঘির জল পরীক্ষার রিপোর্ট শিলিগুড়ি থেকে আসে পৌঁছেছে এবং কিছু কিছু পুরনো বিল্ডিঙের কাজ ও প্রায় শেষ হয়ে গেছে। আমরা আসা করছি খুব শীঘ্রই সম্পূর্ণ কাজ শেষ হয়ে কোচবিহার শহরকে হেরিটেজ হিসেবে ঘোষণা হয়ে যাবে।”

কোচবিহারে কয়েকশো বছরের ইতিহাস জড়িত নিদর্শনগুলির অনেকগুলোই ধ্বংসের মুখে। এর পাশাপাশি হেরিটেজ ঘোষণার আগে শহরের কিছু পরিকাঠামোগত কাজ রয়েছে। সেই কাজ অবশ্য চলছে জোরকদমে। তা সম্পূর্ণ হওয়ার পরেই কোচবিহারকে চূড়ান্ত ভাবে হেরিটেজ ঘোষণা করা হবে।