দেশে ১৩০ কোটি মানুষই ‘হিন্দু’, বললেন মোহন ভাগবত

455

ওয়েব ডেস্ক, ২৬ ডিসেম্বরঃ দেশের বসবাসকারী ১৩০ কোটি মানুষই ‘হিন্দু’।এমনটাই দাবি করলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত।তিনি জানান, ধর্ম বা সংস্কৃতির ভিত্তিতে নয়, আসলে যারাই ভারতকে ভালবাসেন তারা সকলেই হিন্দু। তাঁর কথায়, ‘যারা এই দেশকে ভালবাসেন, অগ্রগতি চান তারা সবাই হিন্দু৷ ভারতের ১৩০ কোটি মানুষই হিন্দু৷’ এনআরসি ও নয়া নাগরিকত্ব আইন নিয়ে নিয়ে দেশ যখন কার্যত উত্তাল, বিক্ষোভ-প্রতিবাদের মধ্যে এই প্রথম মুখ খুললেন মোহন ভাগবত৷

হায়দরাবাদের সারুর নগরের ইন্দোর স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হয় রাষ্ট্রীয় স্বংয়সেবক সঙ্ঘের বিজয় সংকল্প শিবির৷সেখানে এই বিষয়ে মন্তব্য করেন সঙ্ঘ প্রধান। সভায় উপস্থিত ছিলেন ৮ হাজারেরও বেশি স্বয়ংসেবক।

এদিন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘স্বদেশি সমাজ’ থেকেও উদ্ধৃতি দেন মোহন ভাগবত। রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন, ব্রিটিশরা ধরেই নিয়েছিল, হিন্দু-মুসলিম মারামারি কররে মরবে। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে তা হয়নি। ব্রিটিশরা ভুল প্রমাণিত হয়েছিল।হিন্দুর প্রণয়ন করা সমাধানের ভিত্তিতেই অশান্তি হয়নি। এর পরেই তড়িঘড়ি যোগ করেন, এটা রবীন্দ্রনাথের বক্তব্য, আমার নয়।

তিনি বলেন  ‘সঙ্ঘ তাকেই হিন্দু বলে মনে করে যে ভারতকে নিজের মাতৃভূমি মনে করে৷এই ক্ষেত্রে সেই ব্যক্তি যে কোনও ভাষা বলতে পারেন, যে কোনও ধর্ম থেকে হতে পারেন, যে কোনও ভগবানকে পুজো করতে পারেন বা পুজো নাও করতে পারেন৷এই ভাবে দেখতে গেলে ভারতে বসবাসকারী ১৩০ কোটি মানুষই হিন্দু৷