তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়কের বাড়িতে বোমাবাজি করার অভিযোগ দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে, চাঞ্চল্য এলাকায়

139

পার্থ দাস, বীরভুমঃ তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক স্বপন কান্তি ঘোষের বাড়িতে বোমাবাজিকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। ঘটনাটি মহম্মদবাজার থানার প্যাটেলনগরে। যদিও ঘটনার সময় স্বপন কান্তি ঘোষ ও তার পরিবারের লোকজন কেউ বাড়িতে ছিলেন না। স্বপন ঘোষ সস্ত্রীক বর্তমানে কলকাতায় রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

জানা গেছে, তৃনমূলের প্রাক্তন বিধায়ক স্বপন কান্তি ঘোষের বাড়িতে গতকাল গভীর রাতে পরপর তিনটি বোমা ছোঁড়ে একদল দুষ্কৃতী। ওই তিনটি বোমার মধ্যে দুটি বোমা তার বাড়ির সামনে ফাটে। ওই সময় তার বাড়িতে নিরাপত্তা রক্ষী ছাড়া আর কেউ ছিলেন না৷ ওই ঘটনার খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে একটি তাজা বোমা উদ্ধার করে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, স্বপন কান্তি ঘোষ ২০১১ সালে সিউড়ি বিধানসভা কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে নির্বাচিত হন। যদিও পরে সিউড়ি পৌরসভা এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা নিয়ে স্থানীয় নেতৃত্বের সাথে তার মতানৈক্য হয়। তারপর মাঝপথে তিনি এক প্রকার দল থেকে সরে দাঁড়ান। পরে আবার সেই মতানৈক্যের জেরে দল ত্যাগ করেন। স্বপন কান্তি ঘোষ ছাড়াও তার বাবা স্বর্গীয় নিতাই পদ ঘোষ দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় কংগ্রেসের টিকিটে বিধায়ক ছিলেন। তবে বর্তমানে এই ঘোষ পরিবার রাজনীতি থেকে সম্পূর্ণ দূরে। আর এমত অবস্থায় বোমাবাজির কারণ হিসেবে অনেকে ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব থাকতে পারে বলেও মনে করছেন। কে বা কারা বোমা ছুড়লো তার তদন্ত শুরু করেছে মহম্মদবাজার থানার পুলিশ।

এদিন স্বপন কান্তি ঘোষের বাড়ির সিকিউরিটি স্বপন বাগদি জানান, “ভোর তিনটে নাগাদ আওয়াজ শুনে আমরা বেরিয়ে দেখি বোমা ছোড়া হয়েছে। চারিদিক ধোঁয়ায় ভরে গেছে। তবে বোমা ফাটার পরে আর কাউকে দেখতে পাইনি। সঙ্গে সঙ্গে ফোন করে অন্যান্য কর্মীদের ঘটনার কথা জানাই।”