সোনালির টু্‌ইটের পর বেসুরোদের জন্য ‘ফর্ম’ বানালেন দেবাংশু

798

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ মেঃ এবার নেতা-নেত্রীদের কটাক্ষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ফর্ম পোস্ট করলেন তৃণমূলের যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য। আজ, শনিবার সকালেই ‘সুরে’ফিরতে চেয়ে প্রকাশ্যেই মমতার কাছে আর্জি জানিয়েছেন সোনালি গুহ। ভোটের আগেই তিনি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। আর সোনালির টুইটের কিছুক্ষণ পরই দেবাংশুর পোস্ট করা ওই ফর্ম রীতিমতো ভাইরাল। সেখানে তিনি ‘বেসুরো হওয়ার কারণ’,‘সুর ফিরে পাওয়ার কারণ’জানতে চেয়েছেন।

সরাসরি সোনালি গুহ-র নাম না করলেও দেবাংশু সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষ করে পোস্ট করা সেই ফর্মের শিরোনাম দিয়েছেন ‘বেসুরো স্বীকারোক্ত ফর্ম।’ সংশ্লিষ্ট নেতা মানে যিনি বিজেপি বা অন্য কোনও দল ছেড়ে তৃণমূলে ফিরতে চাইবেন, তাঁদের জন্যই এই ফর্ম। তবে ‘নিজের বিবেকের কাছে’ এই ফর্ম জমা দিতে হবে বলে দেবাংশু বুঝিয়ে দিয়েছেন, এটা নিছকই মজা। ফর্মে রয়েছে বেশ কিছু প্রশ্ন। তবে সোনালির টুইটের সঙ্গে তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয় এই তৃণমূল নেতার ফর্মের সম্পর্ক উড়িয়ে দিচ্ছে না রাজনৈতিক মহল।

উল্লেখ্য, আজ সকালেই মমতার উদ্দেশে একটু টুইট করেন সোনালি। একেবারে সাদা ভাষায় মমতাকে লেখেন, ‘দিদি আপনাকে ছাড়া আমি বাঁচব না।’কোনও ধোঁয়াশা না রেখেই তৃণমূলে ফেরার আর্জি জানান তিনি। বিজেপিতে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে ‘ভুল’বলে উল্লেখ করেন সোনালি। তিনি বলেন, ‘দিদি না ফেরালে সংসার করব’অর্থাৎ তৃণমূলে জায়গা না পেলে অন্য কোথাও আর যাবেন না বলে জানান সোনালি। আর সোনালির এই বার্তার পরই দেবাংশুর পোস্ট।

দেবাংশু এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘ভোটের আগে তো অনেক নেতারই শ্বাসকষ্ট শুরু হয়েছিল। তাঁরা নাকি দলে কাজ করতে পারছেন না।’কটাক্ষ করে তৃণমূলের যুব নেতার বক্তব্য, ‘আগেই বলেছিলাম, ভোট মিটলে ক্ষমা চেয়ে চিঠির লাইন পড়বে পার্টি অফিসে। সেটাই হচ্ছে।’

দেবাংশুর এই বক্তব্যে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সোনালি। তৃণমূলের বহু পুরনো নেত্রী হয়ে দেবাংশুর এমন কটাক্ষের জবাবে তিনি বলেন, ‘মমতা দি যদি দেবকী হন, তাহলে আমিও যশোদা।’মমতার সঙ্গে যে তাঁর বহু পুরনো সম্পর্ক সেটা বুঝিয়ে দেন।

অন্যদিকে, দেবাংশুর এই কটাক্ষে বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, ‘সোনালির মতো নেত্রীকে এখন দলে ফিরতে দেবাংশুর কাছে জবাবদিহি করতে হচ্ছে। এটা আমার খুব ভালো লেগেছে।’তবে দেবাংশুর দাবি, মান অভিমানেই যে অনেকে দল ছাড়ছেন সে কথা বিজেপির আগে বোঝা উচিৎ ছিল।