ভারতের ইতিহাস নতুন করে লেখার প্রস্তাব অমিত শাহের

791

ওয়েব ডেস্ক, ১৮ অক্টোবরঃ ভারতীয় দৃষ্টিভঙ্গি থেকে নতুন করে ইতিহাস লেখার প্রস্তাব দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বৃহস্পতিবার তিনি বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এই প্রস্তাব দেন। তিনি বলেন, “ঐতিহাসিকদের ভারতীয় দৃষ্টিভঙ্গি থেকে নতুন করে ইতিহাস লেখা প্রয়োজন।” তাঁর দাবি, “বীর সাভারকার না থাকলে ১৮৫৭ সালে হওয়া স্বাধীনতার প্রথম যুদ্ধ ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ হিসেবেই ধরা হত। শুধুমাত্র তাঁর জন্যই এটা দেশের প্রথম স্বাধীনতা যুদ্ধ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।”

তবে অমিত শাহর এমন মন্তব্যের আগেই অবশ্য সাভারকরকে দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান ‘ভারতরত্ন’ দেওয়ার কথা তুলেছে মহারাষ্ট্র বিজেপি। তার উল্লেখ করা হয়েছে নির্বাচনী ইস্তেহারেও।এরপর দেশজুড়ে সমালোচনায় নামে বিরোধীরা। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে কটাক্ষ করে বলা হয়, এবার একমাত্র ভগবানই দেশকে রক্ষা করতে পারেন। কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি তীব্র সমালোচনা করে টুইট করেন, ধর্ষণকে যে যুদ্ধের হাতিয়ার মনে করত তাকে ভারতরত্ন দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। এর একধাপ এগিয়ে এআইএমআইএম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়েইসি বলেন, ‘শুধু সাভারকারই নয়, বিজেপি সমর্থকরা গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসেকে দেশের সর্বোচ্চ পুরস্কার দেওয়ার দাবি তুলুক।

বেনারসের ওই অনুষ্ঠান থেকেই বিরোধীদের এই কটাক্ষের জবাব দেন অমিত শাহ। বলেন, “সবাইকে অনুরোধ করছি ভারতীয় দৃষ্টিভঙ্গি থেকে পুনরায় ইতিহাস রচনা করুন। তাহলেই আসল সত্যিটা দেশের মানুষের সামনে আসবে।তিনি আরও বলেন ‘“আমাদের ইতিহাস রচনা করা আমাদের দায়িত্ব। আমরা আর কতদিন ব্রিটিশদের উপর দোষ চাপাব? আমাদের কারও সঙ্গে বিরোধ নেই, শুধু সত্যিকথা লিখতে হবে তাহলেই তা সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবে।”