মায়ের বকুনিতে রেগে গিয়ে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা মেয়ের

577

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদাঃ পড়াশুনা না করে মোবাইল ফোনে ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপে ব্যস্ত থাকত। ঘটনা দেখতে পেয়ে মা বকাবকি করলে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করলো মেয়ে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা গাজোল থানার রানীগঞ্জ এলাকায়।যদিও ময়না তদন্তের পাঠিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গাজোল থানার পুলিশ।
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,মৃতের নাম বিউটি বালো(১৯)। বাড়ি গাজোল থানার রানীগঞ্জ এলাকায়। সে স্থানীয় কৃষ্ণ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের এবারের উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার্থী। বেশ কয়েকমাস আগেই বাবা লালমোহন বালোর মৃত্যু হয়। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের দ্বাদশ শ্রেণীতে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল ফোন কেনার জন্য টাকা দেয়। সেই টাকা দিয়েই বিউটি একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন কিনে।এরপর থেকেই সে পড়াশুনা না করে মোবাইল ফোনের ফেসবুক আর হোয়াটসঅ্যাপে ব্যস্ত থাকত। যার ফলে তার পড়াশোনার ক্ষতি হচ্ছিল। ঘটনা দেখতে পেয়ে তার মা টুবি বালো মেয়েকে মোবাইল ফোন ছেড়ে পড়াশোনার কথা বলতো। বুধবার ঘুম থেকে উঠেয় সে মোবাইল ফোনে ব্যস্ত হয়ে পরে। ঘটনা দেখতে পেয়ে মা বকাবকি করতে থাকে। এরপর তার মা কাজে বাড়ির বাইরে চলে যায়। এরপর বিউটি বিষ খেয়ে মাটিতে পরে ছটফট করতে থাকে। মা বাড়িতে এসে তাকে এই অবস্থায় দেখে চিৎকার চেচামেচি শুরু করলে স্থানীয় প্রতিবেশীরা ছুটে আসে।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে স্থানীয় গাজোল গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে এদিন মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গাজোল থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।