অতি বর্ষণের ফলে কেষ্টপুর খালের উপরে ভেঙ্গে পড়ল কাঠের সেতু বিপদে কয়েক হাজার মানুষ

14

শ্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ অতি বর্ষণের ফলে ভেঙ্গে পড়ল কাঠের সেতু। বিপদে কয়েক হাজার মানুষ। ঘটনাটি ঘটেছে, বসিরহাট মহাকুমার হাড়োয়া ব্লক এর কামারগাতী এলাকায়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে অতি বর্ষণের ফলে কেষ্টপুর খাল এর উপর হাড়োয়া ও মিনাখা যোগাযোগকারী ২৫০ ফুট লম্বা ১২ ফুট চওড়া কাঠের সেতু ছিল। তার থেকে প্রায় ৩০ ফুটের মতো অংশ ভেঙে পড়ল কেষ্টপুর খালের উপরে। পাশাপাশি দুটি কাঠের দোকান ও প্রাচীন গাছ ভেঙে পড়েছে খালের মধ্যে। সব মিলিয়ে মিনাখা ও হাড়োয়া সেতু যোগাযোগকারী যান চলাচল থেকে শুরু করে যাতায়াতের মাধ্যম বন্ধ হয়ে গেল। ঘটনাস্থলে হাড়োয়ার বিডিওর প্রতিনিধি ও সেচ দপ্তরে আধিকারিকরা  ঘটনাস্থলে গিয়েছেন। এছাড়া এলাকার জনপ্রতিনিধি রয়েছেন।

৩০ ফুট কাঠের সেতু ভেঙে পড়ায় বহু মানুষ বিপদের মধ্যে পরেছে। পাশাপাশি দোকান ঘর ভেঙে পড়ায় ব্যবসায়ী মহলে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। সব মিলিয়ে স্থানীয় বাসিন্দা থেকে ব্যবসায়ীরা চাইছেন দ্রুত এই সেতুর কাজ শুরু হোক। জানা গেছে, প্রশাসন ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিকভাবে একটা রিপোর্ট তৈরি করছে। খুব শীঘ্রই এই সেতুর কাজ শুরু হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

হাড়োয়া থানার কুলটি অঞ্চলের ঘোষপুর কামারগাতী ঘুসিঘাটা সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় কেষ্টপুর খাল বয়ে গেছে। আর সেই খালের পাশে রয়েছে অসংখ্য দোকান ঘর। সেই দোকান চালিয়ে এলাকার মানুষ জীবিকা নির্বাহ করেন, আর অতিরিক্ত বর্ষণের ফলে সেই দোকান তলিয়ে গেল খালের মধ্যে, এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ঘোষপুর এলাকাজুড়ে। এমনকি একটি কাঠের সেতু ভেঙে পড়েছে খালের উপর বেশ কয়েকটি কাঁচা-পাকা সহ দোকান উপড়ে পড়েছে খালের ভিতরে ঘটনায় এলাকার মানুষ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন এবং এক প্রকার জীবিকা নির্বাহ করতেন দোকান চালিয়ে, সেটিও বন্ধ হতে বসেছে।

এবিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সরকার যদি তাদের পাশে এসে দাঁড়ায় তাহলে তাদের সংসারটা বেঁচে যাবে।পাশাপাশি খালের পাশে দোকান বসানো বেআইনি কিনা সেটাও খতিয়ে দেখছে প্রশাসন। উঠছে প্রশ্ন প্রশাসনের নজর এড়িয়ে কিভাবে এতগুলো দোকান গড়ে উঠলো বাসন্তী হাইওয়ে লাগোয়া কুলটি অঞ্চলের ঘোষপুর, কামারগাতী কুলটি লকগেট, ঘুসিঘাটা সহ বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে।