“এসএমএস করে রামমোহন ক্ষমা করে দিয়েছেন” ট্যুইট করে রসিকতা বাবুলের

101

ওয়েব ডেস্ক, ২৭ সেপ্টেম্বরঃ বিদ্যাসাগরের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে বসলেন  কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন, “সতীদাহ প্রথা বিলোপ করেছিলেন বিদ্যাসাগর।” আর কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এহেন মন্তব্যের পরই চারিদিকে সমালোচনা শুরু হয়েছে চারিদিকে। আর এরপরই ট্যুইট করে ভুল স্বীকারের চেষ্টা করেন বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু তা করতে গিয়ে চূড়ান্ত রসিকতার আশ্রয় নেন তিনি। রামমোহন রায়ের নাম করে যে রসিকতা তিনি করেন, তা একজন ওই মাপের সমাজ সংস্কারককে নিয়ে মন্তব্য করা যায় কিনা, তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।

তিনি ভুল স্বীকার করে লেখেন, “সত্যি আজ একটা ভুল করেছি। বিদ্যাসাগর নিয়ে বলার সময় বিধবা বিবাহ বলতে গিয়ে, বিধবা বিবাহ তো বলেছি তবে তার সাথে সতীদাহ প্রথার অবলুপ্তিটাও জুড়ে দিয়েছি। অসতর্কভাবে ভুল করেছি। কিন্তু এবার কি হবে বলুন তো!! আমি কি বাঁচার অথবা নিঃশ্বাস নেওয়ার অধিকার হারিয়ে ফেললাম? কত মানুষ কত কিছু লিখেছে, বিশেষ করে বাম-ইয়েরা! যদিও রাজা রামমোহন রায় অলরেডি আমাকে মাফ করে দিয়ে হাসিমুখে এসএমএস করেছেন। ‘আপনারাও মাফ করে ফেলুন বলতে খুব ইচ্ছে করছে, কিন্তু পারবেন কি?’ তবে আর যাই করি না কেন, মানুষের ক্ষতি কিন্তু করি না, বৃষ্টির দিনে চা-তেলেভাজার সাথে ডিসকাস করার মতো একটা টপিক তো পেলেন।’ সেইসঙ্গে তিনি সংযোজন করেছেন, ‘যাদবপুরে এনআরসি-র ফুল ফর্ম জিগ্গেস করার সাথে এটার কিন্তু কোনও সম্পর্ক নেই।’

প্রসঙ্গত, গতকাল কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘খোলা হাওয়া’ নামে একটি সংগঠন চালু করে বিজেপি। ওই অনুষ্ঠানেই ছিলেন আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তাতেই তিনি বলেন, “সতীদাহ প্রথার বিলোপ, বিধবা বিবাহ চালু করেছিলেন বিদ্যাসাগর। তাঁর জন্মদিনে একটা সংগঠন শুরু হচ্ছে, এটা অনেক বড় ব্যাপার।” একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কীভাবে সকলের সামনে জোর গলায় ভুল তথ্য দিতে পারেন, তা নিয়ে রীতিমতো হইচই পড়ে যায়। সমালোচনার সুর ওঠে চতুর্দিকে। এই ভুল মন্তব্যকে কেন্দ্র করে নেটদুনিয়ায় একাধিক মিমও ছড়িয়ে পড়ে। বাবুলের বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে বেজায় অস্বস্তিতে পড়ে গেরুয়া শিবির।

বিজেপি নেতাদের এই ধরনের বেফাঁস মন্তব্য  অবশ্য নতুন কিছু নয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব, মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিওয়াল, এরাজ্যে দিলীপ ঘোষ অনেকেই এমন সব মন্তব্য করেছেন, যা বিপুল চর্চার বিষয় হয়েছে। সেই তালিকায় এবার নাম উঠল বাবুল সুপ্রিয়রও।