বাবুল সুপ্রিয়র নিগ্রহ কাণ্ডে অভিযুক্ত দেবাঞ্জনকে বেধড়ক মার

2076

ওয়েব ডেস্ক, ৩ অক্টোবরঃ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে নিগ্রহ কাণ্ডে নাম জড়িয়েছিল দেবাঞ্জনের। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে চুলের মুঠি ধরে টানার ছবি ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল  মিডিয়ায়। মা ক্ষমা চেয়েছিলেন ছেলের হয়ে। মন্ত্রীও বলেছিলেন সব ঠিক হয়ে যাবে। যদিও সেই অভিযুক্ত দেবাঞ্জন আক্রান্ত হলেন। তাকে চুলির মুঠি ধরে বাস থেকে নামিয়ে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি-আরএসএস কর্মীদের বিরুদ্ধে। একইসঙ্গে দেবাঞ্জনের বান্ধবী প্রজ্ঞা রায়চৌধুরিকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।

দেবাঞ্জনের অভিযোগ, বুধবার সন্ধ্যা ৭ টা ১০ মিনিট নাগাদ কলকাতা যাওয়ার জন্য সে বান্ধবীকে নিয়ে বাসে উঠতে যায়৷ সেই সময় অতর্কিতে তার ওপর হামলা চালায় ছয়-সাত জন বিজেপি সমর্থক। ব্যাপক কিল চড় ঘুষি মারা হয়। দেবাঞ্জন জানিয়েছে, এরপর একজন বিজেপির নেতা এসে হুমকি দিয়ে যায় বাবুল সুপ্রিয়কে মারার জন্য তাকে ছাড়া হবে না। হামলার পরে রাত্রেই তিনি বর্ধমান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। গোটা ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। যদিও বিজেপি এবং এবিভিপি এই ঘটনা দায় অস্বীকার করেছে৷ জানিয়েছে, তারা এই ঘটনার সঙ্গে কোনও ভাবেই জড়িত নয়। উদ্দেশ্যমূলক ভাবে এটা রটানো হচ্ছে৷

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি যাদবপুরে এবিভিপির একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তাঁকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখায় বাম সমর্থক ছাত্ররা। সেই সময় দেবাঞ্জন বাবুল সুপ্রিয়কে নিগৃহীত কর বলে অভিযোগ। সেই সময় ইউনাইটেড স্টুডেন্টস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সক্রিয় কর্মী দেবাঞ্জন বাবুল সুপ্রিয়কে নিগৃহীত করেন বলে অভিযোগ।পরে রাজ্যপাল গিয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে উদ্ধার করেন।