কোটি কোটি টাকা লেনদেন করা সারদা-কর্তার ৩০ হাজার জোগাড় করতে না পারায় জামিন নামঞ্জুর

155

ওয়েব ডেস্ক, ২৯ জুলাইঃ একসময় বিভিন্ন কর্মীদের লক্ষ লক্ষ টাকা বেতন দিতেন। লেনদেন করতেন কোটি কোটি টাকার। তার কাছে এখন ৩০ হাজার টাকাও নেই! তাই জামিন হলেও ঠাঁই হয়েছে গরাদের ওপারেই। সিবিআইয়ের মোট চারটি মামলার মধ্যে তিনটিতে আগেই জামিন পেয়ে গিয়েছেন সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেন। কিন্তু আদালতের শর্ত অনুযায়ী ব্যক্তিগত বন্ডে ৩০ হাজার টাকা জমা করতে পারেননি তিনি। তাই হাজতেই থাকতে হচ্ছে তাকে।

সারদাকর্তার আইনজীবী সমীর দাস বিষয়টিতে জানিয়েছেন, আট বছর ধরে জেল খাটছেন সুদীপ্ত সেন। একাধিক মামলাতে জামিনও পেয়েছেন। তার দুই স্ত্রী ও সন্তানরাও চরম আর্থিক অনটনে রয়েছে। ছেলে-মেয়েরা ছোটখাট কাজ করে সংসার চালানোর চেষ্টা করছেন। এখন ওঁদের ৩০ হাজার টাকাও দেওয়ার সামর্থ্য নেই। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, সারদা চিটফাণ্ড মামলায় সিবিআইয়ের দায়ের করা দুটি মামলা আলিপুরের অতিরিক্ত বিচার বিভাগীয় আদালতে বিচারাধীন।

একটি মামলা বিধাননগর আদালতে, ব্যাঙ্কশাল মুখ্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে চলছে চতুর্থ মামলা। সুদীপ্ত সেনের আইনজীবীর দাবি, প্রথম তিনটি মামলায় তাঁর জামিন হয়েছে। কিন্তু বছর কেটে গেলেও ব্যক্তিগত বন্ডের টাকা আদালতে দিতে পারেননি সুদীপ্ত সেন। তিনি এখন কপর্দকশূন্য। তাই জেলেই থাকতে হচ্ছে তাকে। তাঁর আত্মীয়বন্ধুরাও কোনও যোগাযোগ রাখেন না।

রাজ্য সরকারের অধিকাংশ মামলায় জামিন হয়েছে। কিন্তু সে-সব ক্ষেত্রেও জামিনের শর্ত অনুযায়ী বন্ড দেওয়া যায়নি। সুদীপ্তের শারীরিক অবস্থাও ভেঙে পড়েছে। তিনি খুবই অসুস্থ।