‘যশ’ মোকাবিলায় বাংলা-ওড়িশায় কড়া নজর কেন্দ্রের! প্রস্তুতিতে ফাঁক রাখতে নারাজ নরেন্দ্র মোদী

78

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ মেঃ ঘূর্ণিঝড় ইয়াস-এর মোকাবিলায় জোর কদমে প্রস্তুতি নিচ্ছে কেন্দ্র। বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। থাকবেন বিভিন্ন কেন্দ্রীয় দফতরের আধিকারিকরাও। তালিকায় রয়েছে টেলিকম ও বিদ্যুৎ দফতর। থাকবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও। ইতিমধ্যেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কমিটির সঙ্গে বৈঠক করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সচিব রাজীব গৌবা। বিপর্যয়ের আগেই যাতে সব প্রস্তুতি সেরে ফেলা যায় সেই নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

কীভাবে দ্রুত নীচু এলাকা থেকে মানুষকে দ্রুত অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, খাবার, জল, ওষুধ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসের যাতে কোনও অভাব না হয়- সেই বিষয়গুলিকে প্রাথমিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখতে বলা হয়েছে বৈঠকে। তবে সবচেয়ে উল্লেখ্য, কোভিড পরিস্থিতিতে কোভিড সেন্টার, সেফ হোম ও হাসপাতালগুলির যাতে কোনও সমস্যা না হয়, সেদিকটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে প্রশাসন।

কেন্দ্র জানিয়েছে, জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ৬৫টি দলকে মোতায়েন করা পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশায়। আরও ২০টি দল তৈরি রয়েছে। বাংলাদেশে জাহাজ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বিএসএফ। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও উপকূলরক্ষী বাহিনীকেও তৈরি রাখা হয়েছে।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস-এর মোকাবিলায় জোর কদমে প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজ্য প্রশাসন। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গোটা বিষয়টি নজরে রাখছেন। শনিবারই সমস্ত শীর্ষ আধিকারিক, জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারদের সঙ্গে নিয়ে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী।

নবান্নের পাশে প্রশাসনিক ভবন উপান্নতে কন্ট্রোল রুম তৈরি করা হয়েছে। যাবতীয় প্রস্তুতি খতিয়ে দেখছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছেন তিনি। এনডিআরএফ টিম পৌঁছে গিয়েছে জেলায় জেলায়। বেশ কয়েকটি কন্ট্রোল রুমও খোলা হয়েছে। আপৎকালীন ফোন নম্বরও দেওয়া হয়েছে। সেগুলো হল—১০৭০ এবং ০৩৩-২২১৪৩৫২৬।