‘বাইক বাহিনী এনে ওষুধ দিয়ে দাও নিদান বিশ্বভারতীর উপাচার্যের,ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

146

পার্থ দাস, বীরভূম: ‘বাইক বাহিনী এনে ওষুধ দিয়ে দাও’, এমনই বলছেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য। সেই ভিডিও ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। ভিডিওটি আমাদের হাতেও এসেছে, এমনকি ভিডিওটি পৌঁছেছে পুলিশের কাছেও। পুলিশ সুপার শ্যাম সিং জানিয়েছেন, “ভিডিও ক্লিপিং সমেত একটি অভিযোগ পেয়েছি। খতিয়ে দেখা হচ্ছে।” যদিও সেই ভিডিও সত্যতা ‘ যাচাই করে নি খবরিয়া ২৪।

প্রসঙ্গত, গত ৭ই জানুয়ারি সন্ধ্যায়। মোমবাতি মিছিল চলছে শান্তিনিকেতনে, নেতৃত্বে বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। পৌষমেলা শেষ হওয়ার পরেও বেশ কিছু দোকান ব্যবসা করছিল মেলার মাঠে। সে দোকানগুলি তুলতে দেওয়া করেছিল বিশ্বভারতী। বিশ্বভারতীর উপাচার্যের বিরুদ্ধে দোকান লুট সহ নানান অভিযোগ এনেছিলেন ব্যবসায়ীরা। তার বিরুদ্ধেই মোমবাতি মিছিলের ডাক দিয়েছিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। সেই মিছিলে হাঁটতে হাঁটতে উপাচার্যের পাশে থাকা এক যুবকের সাথে কথোপকথনের ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে যা আপনাকেও ভিমরি খাইয়ে দিবে।

ভিডিওতে ‘বাইক বাহিনী নিয়ে এসে ওষুধ দেওয়ার’ নিদান দিচ্ছেন খোদ উপাচার্য। কাকে দিচ্ছেন?  পড়ুয়া, অধ্যাপকরা বলছেন, মিছিলে উপাচার্যের পাশে হাঁটা অচিন্ত্য বাগদীর উদ্দেশ্যেই এই কথা বলছেন উপাচার্য। উপাচার্য বলছেন, ‘আমাকে ছবিগুলো সব দিও’। অচিন্ত্য বাগদি ‘নাম সমেত আমি আপনাকে কাল পাঠিয়ে দেব।’ উপাচার্য ‘ওষুধ দিয়ে দাও।’ অচিন্ত্য ‘আপনার গ্রিন সিগনাল না পেলে আমি তো কিছু করতে পারি না।’ উপাচার্য ‘কালকে একটু এসো…অচিন্ত্য সাড়ে তিনটের সময় ওরা (ছাত্ররা) নিশ্চয় বদমাইশি করার চেষ্টা করবে।’ এরপর অচিন্ত্যর উদ্দেশ্যে উপাচার্য বলছেন, ‘তোমার বাইক বাহিনী নিয়ে চলে এসো।’ অচিন্ত্যর উত্তর ‘এখুনি মেরে দিয়ে আসব ছেলে কটাকে।’

গত ১৫ই জানুয়ারি রাতে বিশ্বভারতীতে বাম ছাত্রনেতাদের উপর হামলায় অভিযুক্ত এই অচিন্ত্য। এখন জেলে। উপাচার্যের মদতেই যে দুষ্কৃতিরা হামলা চালিয়েছিল তা প্রমান করে দিচ্ছে এই ভিডিও। ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পরই ছাত্রদের তরফে ভিডিও সমেত অভিযোগ জমা দেওয়া হয়েছে শান্তিনিকেতন থানায়। যে ভিডিওটি এই মুহুর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। এই ভিডিওর কথোপকথন কি সত্যিই বিশ্বভারতীর উপাচার্যের? নাকি উপাচার্যকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা! সবকিছু খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিং।