বলরামপুরে ফের ঘর ভাঙ্গন বিজেপির,১০০ পরিবার তৃনমূলের যোগদানের দাবি নেতৃত্বের

84

কোচবিহার, ২৬ সেপ্টেম্বরঃ ফের ঘর ভাঙ্গল বিজেপির। তুফানগঞ্জ ১ নং ব্লকের বলরামপুর এলাকার বিজেপির কিষাণ মোর্চার সম্পাদক সুশান্ত বর্মণ (মনু) ১০০ পরিবার নিয়ে বৃহস্পতিবার তৃনমূলে যোগদান করে বলে দাবি করল নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল নেতৃত্ব। এদিন নাটাবাড়ি বিধানসভার কেন্দ্রের তৃনমূলের কনভেনার আশরাফুল আলির হাত ধরে এই দল বদলের ঘটনা ঘটে।

এদিন কোচবিহার ১ নং ব্লকের ৪নং বাজার এলাকায় তৃনমূলের দলীয় কার্যালয়ে বিজেপির কিষাণ মোর্চার সম্পাদক সুশান্ত বর্মণ (মনু) সহ নবাগতদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন আশরাফুল আলি। তিনি বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক বিজেপি রাজ্যের প্রতিটি এলাকায় অশান্তির পরিবেশ তৈরি করেছে। লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর থেকে বিজেপি যেভাবে এলাকায় সন্ত্রাস তৈরি করছে তাতে বীতশ্রদ্ধ হয়ে বিজেপির কর্মীরা তৃনমূলে আসছেন। একই সাথে মমতা বন্ধোপাধ্যায়ের হাতকে শক্ত করতে সংকল্প বন্ধ হয়েছে তারা। নবাগতদের আমরা স্বাগত জানাই।’  

তৃনমূলের পতাকা হাতে নিয়ে সুশান্ত বর্মণ (মনু) বলেন, ‘বিজেপি এলাকায় সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছে। এনআরসি নিয়ে মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে। তাই ওই দল ত্যাগ করে আমরা ১০০পরিবার আজ তৃনমূল কংগ্রেসে যোগদান করলাম।’

পানিশাল তৃনমূলের দলীয় কার্যালয়ে আশরাফুল আলি সহ নবাগতরা

এদিকে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিদিন বিজেপি থেকে তৃনমূলে আসার যে প্রবণতা দেখা যাচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ নিশীথ প্রামানিক বলেন, ‘এই দল বদল ভক্তিতে নয়, ভয়ে হচ্ছে। দলবদল কারীরা নিয়মিত বিজেপি নেতৃত্বের সাথে যোগাযোগ রাখছে বলে তার দাবি।’ তিনি আরও বলেন, ‘এদের দেহ তৃনমূলে গেলেও, মন বিজেপিতেই রয়েছে।’