শ্লীলতাহানি ও মারধর করার অভিযোগ বিজেপি নেতা অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে

163

ওয়েব ডেস্ক, ৫ জানুয়ারিঃ শ্লীলতাহানি, মারধর ও চুরির অভিযোগ উঠছে বিজেপি নেতা অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে হো-চি-মিন সরণির এক হোটেলের পাবে। বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে শেক্সপিয়র সরণি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপি নেতা। বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে শেক্সপিয়ার সরণি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন কসবার বাসিন্দা সুরেশ রায়।

সুরেশ রায় অভিযোগ, শনিবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ অভিজাত ওই পাবে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে অনুপম হাজরার সঙ্গে তাঁর বচসা সৃষ্টি হয়। সুরেশ রায় আরও বলেছেন, বিজেপি নেতা তাঁর বান্ধবীর শ্লীলতাহানি করেন এবং তাঁকেও মারধর করেন। প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা বিজেপি নেতা অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে এমনটাই পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন কসবার বাসিন্দা।

যদিও এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন বিজেপি নেতা সব অভিযোগ নাকচ করে ফেসবুক লাইভে রবিবার গোটা ঘটনার কথা জানান। পাল্টা অভিযোগ করে অনুপম হাজরা জানান, অভিযোগকারী তৃণমূলের ঘনিষ্ঠ। পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপি নেতা। তিনি জানান, যে নামকরা ওই পানশালাতে তিনি তাঁর কয়েজন বন্ধুর সঙ্গে গিয়েছিলেন সেখানেই এক মদ্যপ ব্যক্তি বারবার তাঁর কাছে আসার চেষ্টা করে এবং তাঁর সঙ্গে সেলফি তুলবেন বলে দাবি করেন। বিজেপি নেতার দেহরক্ষীরা বাধা দিলেও মদ্যপ ব্যক্তি চিৎকার শুরু করে দেন। তারপর অনুপম হাজরাকে ডেকে ছবিও তোলেন। তার কিছুক্ষণ পরই বিজেপি নেতার দেহরক্ষীরা লক্ষ্য করেন বিভিন্নভাবে অনুপম হাজরার ভিডিয়ো করছেন সুরেশ রায় নামের ওই ব্যক্তি। তারপরই মদ্যপ ব্যক্তিকে পাব থকে বের করে দেওয়া হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ৩২৩, ৩৭৯, ৩৫৪, ৫০৬, ৪২৭ ধারায় অনুপমের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে শেক্সপিয়র সরণি থানার পুলিশ। ঘটনার পরের দিন অর্থাৎ রবিবার সকালে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুপম হাজরা দাবি করেন যে, গোটা বিষয়টি ভিত্তিহীন। তাঁর সঙ্গে কারও কোনও বচসা হয়নি।