ত্রিপুরার পুরভোটের ফল প্রকাশিত হতেই টুইটে বিজেপি, তৃণমূল উভয়কেই বিঁধলেন তথাগত রায়

217

ওয়েব ডেস্ক, ২৯ নভেম্বরঃ কিছুদিন ধরেই টুইটে বিজেপির প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করছিলেন তথাগত রায়। সম্প্রতি বিজেপির সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদের ইঙ্গিতও দিয়েছিলেন তিনি। রবিবার ত্রিপুরার পুরভোটের ফল প্রকাশিত হতেই টুইটে বিজেপি, তৃণমূল উভয়কেই বিঁধলেন মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল। যদিও তাতে গুরুত্ব দিতে নারাজ দুই শিবিরই।

একুশের নির্বাচনে বাংলা দখলের মরিয়া চেষ্টা করেছিল বিজেপি। দফায় দফায় রাজ্যে প্রচারে এসেছেন অমিত শাহ-সহ অন্যান্য নেতারা। ২০০ আসন জয় নিশ্চিত বলেই দাবি করেছিলেন কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতারা। কিন্তু ভোটে কার্যত ভরাডুবি হয়েছে গেরুয়া শিবিরের। একইভাবে ত্রিপুরায় মাটি শক্ত করতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ তৃণমূল নেতারা মরিয়া চেষ্টা চালিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানকার পুরভোটে খাতা খুললেও আশানুরূপ ফল করতে পারেনি তৃণমূল। এরপরই টুইটে বিজেপি ও তৃণমূলকে বিঁধলেন তথাগত রায়।

এদিন টুইটে তিনি লেখেন, “ত্রিপুরায় তৃণমূলের এই পরিণতি বাংলায় বিজেপির হারের প্রতিফলন। বহিরাগতদের নেতাদের দিয়ে কোনওভাবেই নির্বাচন জেতা সম্ভব নয়। কারণ, রাজ্যের বাইরের নেতারা মানুষের আবেগ বোঝে না।” অর্থাৎ তাঁর দাবি, ঠিক যে কারণে বাংলায় মুখ থুবড়ে পড়েছিল বিজেপি, একই কারণে ত্রিপুরায় মাত্র একটি আসনে জয় পেয়েছে তৃণমূল। তবে তথাগত রায়ের টুইটকে গুরুত্ব দিতে নারাজ বিজেপি ও তৃণমূল। এ বিষয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বাংলায় বিজেপির পরিণতি এমন হবে, তা সকলেরই জানা ছিল। আমি বাংলার নির্বাচনের সময় সতর্ক করেছিলাম।” পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃণমূলকে গ্রহণ করেছে ত্রিপুরা। তা ভোটের ফলেই স্পষ্ট। জয়প্রকাশ বলেছেন, “তথাগত বাবু কী বলতে চেয়েছেন তা উনিই জানেন। আমার জানা নেই।”