বিদ্যুৎ মাসুল কমানোর দাবিতে সেন্ট্রাল এভিনিউ অভিযান,পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি বিজেপি যুবমোর্চার

10

ওয়েব ডেস্ক, ১১ সেপ্টেম্বরঃ বিদ্যুতের মাসুল কমানোর দাবিতে বিজেপি যুব মোর্চার সিইএসসি ভবন অভিযানে ধুন্ধুমার কাণ্ড। আন্দোলনকারী ও পুলিশের মধ্যে প্রবল ধস্তাধস্তি চলে। শুরু হয় ইটবৃষ্টি। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে জলকামানের ব্যবহার করে পুলিশ।কাঁদানে গ্যাসেরও ব্যবহার করতে হয়। ইটের আঘাতে  বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মীর মাথা ফাটে।জখম হন পুলিকর্মীরাও।ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করে আন্দোলনকারীরা।  

 পুলিশ তাঁদের বাধা দিতে শুরু করে৷ শুরু হয় জল কামান নিয়ে প্রতিরোধ৷পরে কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় পুলিশ৷ পালটা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইঁট বৃষ্টি করে বিজেপির যুব মোর্চার কর্মীরা৷এক বিজেপি কর্মী আহত হন এই সংঘর্ষে৷সবাইকে এলাকা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷  

বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মীকে আটক করে পুলিশের ভ্যানে তোলা হয়৷ উপস্থিত বিজেপি নেতারা জানান এভাবে কোনও আন্দোলন আটকানো যাবে না৷ আরও বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে বিজেপি৷ গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি নেই রাজ্য৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে অত্যাচার চালাচ্ছে৷ গ্রেফতার করা হয়েছে বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়, সায়ন্তন বসু ও দেবজিত সরকারকে।

 রাজ্য বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু বলেন, ‘বাংলায় কোনও গণতন্ত্র নেই।অনেকের মাথা ফেটেছে। অনুমান করছি ৪০-৫০ জন কর্মীর মাথা ফেটেছে। কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে’।