নানুরে গুলিবিদ্ধ বিজেপি নেতার মৃত্যুর প্রতিবাদে পথ অবরোধ

10

বোলপুর, ১০ সেপ্টেম্বরঃ বিজেপি নেতা স্বরূপ গড়াইয়ের মৃত্যুকে ঘিরে এখন বীরভূমে ক্রমশই বাড়ছে রাজনৈতিক পারদ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলাজুড়ে পথ অবরোধে নামেন জেলার বিজেপি নেতৃত্ব। এদিন বিজেপি কর্মীরা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। এর জেরে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে নানুর ও কীর্ণাহার রোড। এখানেই থেমে থাকেনি তাঁরা, ঘটনার পর বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের সামনেও চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এদিনের পৃথক স্থানের পথ অবরোধকে কেন্দ্র করে দুর্ভোগে পড়েন নিত্যযাত্রীরা।

ঘটনার জের, গত ৭ সেপ্টেম্বর, বিজেপির দলীয় পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে বিজেপিতৃনমূল সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল নানুরের রামকৃষ্ণপুর গ্রাম। অভিযোগ, এলাকার বিজেপি কর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি করে স্থানীয় তৃনমূল আশ্রিত দুস্কৃতীরা।

প্রসঙ্গত, ওই গ্রামে বিজেপির নেতাকর্মীরা দলীয় পতাকা লাগাতে যায়। সেইসময় পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে তৃনমূলের সাথে বচসায় বাঁধে স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের। তারপরেই শুরু হয় বোমাবাজি। স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ তাদের এক কর্মী স্বরূপ গড়াইকে লক্ষ্য করে গুলি করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনায় গুরুতর জখম হন ওই কর্মী। সেইদিনের ঘটনায় তড়িঘড়ি তাকে ভর্তি করা হয় বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। পরে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে বর্ধমান মেডিকেল কলজে ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এরপরও তার শারীরিক অবস্থার কোনও রকম উন্নতি না হওয়ায় সেখান থেকে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে। এরপর ৮ সেপ্টেম্বর রাতে মারা যান তিনি। ঘটনার খবর পেয়ে সেইরাতেই হাসপাতালে ছুটে যান বিজেপি নেতারা। এদিন ওই বিজেপি নেতার মৃত্যুর প্রতিবাদে শহরের দুই ব্যস্ততম রোডে পথ অবরোধ করেন বিজেপি কর্মীরা। যার জেরে বিপাকে পড়েন সাধারন যাত্রীরা।