গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়িতে বোমাবাজি, অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে

512

তুফানগঞ্জ ২ অক্টোবরঃ দলছুট এক গ্রাম পঞ্চায়ত সদস্যের বাড়িতে বোমাবাজির ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ালো তুফানগঞ্জের ধলপল এলাকায়। লোকসভা নির্বাচনের কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার কেন্দ্রে বিজেপি পরাজিত হওয়ার পর বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকায় হাত ছাড়া হয় তৃণমূলের দখলে থাকা গ্রাম পঞ্চায়েত গুলি। তৃণমূলের প্রতীকে নির্বাচিত গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যরা যোগ দেয় বিজেপিতে। মাস তিনেক কাটতে না কাটতেই ফের গ্রাম পঞ্চায়েত গুলি পুনঃদখলের নামে তৃণমূল নেতৃত্ব এবং তারা সফলও হয়। তুফানগঞ্জের ধলপল ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েত পুনর দখল করে তৃণমূল।

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল পরাজিত হওয়ার পর এই গ্রাম পঞ্চায়েতটি বিজেপি দখলে এসেছিল। বেশির ভাগ গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য বিজেপিতে যোগদান করে সেইসময়। ক্ষুদিরাম বর্মণ নামের সদস্য তৃণমূল থেকে নির্বাচিত হয়েও বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন। মঙ্গলবার ওই গ্রাম পঞ্চায়েতটি পুনঃদখল করে তৃণমূল। কিন্তু সেই সময় ক্ষুদিরাম বাবু অনুপস্থিত থাকেন। মনে করা হচ্ছে ক্ষুদিরাম বাবু বিজেপিতে রয়ে যান। এরপরেই গভীর রাতে তার বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটে। অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই ঘটনা ঘটায়। এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার ধলপল দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের সাটারামপুর এলাকায় পথ অবরোধ করে বিজেপি কর্মীরা। এর ফলে ওই পথে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ব্যহত হয়।

ক্ষুদিরাম বর্মনের বাড়িতে বোমাবাজির ঘটনায় এলাকায় আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়। ওই রাতে সেখানে পুলিশ গিয়ে একটি তাজা বোমা উদ্ধার করে বলে জানা যায়। ঘটনাস্থল থেকে তুফানগঞ্জ দমকল কেন্দ্রের ইঞ্জিনে গিয়ে পৌচ্ছায়। ঘটনাটির তদন্ত শুরু করেছে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ।