লকডাউনে হেল্পলাইন নাম্বার খুলে, করোনা আক্রান্তের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন খাবার

72

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ হেল্প লাইন নাম্বার ৭৯০৮৮২২৫৩৬, ৯৮৫১৪৪৬৮১৯, এই নম্বরে ফোন করলে পৌঁছে যাবে স্বয়ং রাজ্য নেতা ও বিধায়ক। বসিরহাট মহাকুমার বসিরহাট দক্ষিণ বিধানসভা চিকিৎসক বিধায়ক সপ্তসী ব্যানার্জি, রাজ্য তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ মিত্র, সমীক রায় অধিকারী সহ বসিরহাট পৌরসভা সমস্ত তৃণমূলের কাউন্সিলররা মিলে রবিবার সকাল থেকে নতুন শপথ নিলেন ।

একদিকে যশের আগমনে সিঁদুরের মেঘ দেখছে রাজ্যবাসী, অন্যদিকে করোনা আক্রান্ত পরিবারের পাশে সব রকম পরিষেবা দিতে পৌঁছে যাচ্ছে বাড়িতে। সেই কথা মাথায় রেখে পৌরসভার বিভিন্ন জায়গায় তৈরি করা হয়েছে কমিউনিটি কিচেন। নিজেরাই খাবার তৈরী করছে সেই মেনুতে রয়েছে ভাত, ডাল, ডিম সহ বাচ্চাদের শুকনো খাবার গুঁড়োদুধ পৌঁছে দিচ্ছে বাড়ি বাড়ি রাজ্য নেতা ও বিধায়ক।

বসিরহাট পৌরসভার ১৫, নম্বর ওয়ার্ড মির্জাপুর কমিউনিটি কিচেন খুলে মানুষের পরিসেবা দিচ্ছে। যতদিন লকডাউন চলবে ততদিন এই পরিষেবা বজায় থাকবে বলে জানিয়েছেন। প্রতিদিন প্রায় ৬০০ জন কে তৈরি করা প্যাকেট বন্দি খাবার পৌঁছে দেবে বাড়ি বাড়ি।

একদিকে প্রতিদিন প্রোটিন জাতীয় খাবার অন্যদিকে মাক্স স্যানিটাইজার ভিটামিন ঔষধ দেবেন। তার পাশাপাশি করোনা আক্রান্ত রোগী এই পরিষেবা পাবে। অন্যদিকে আগামী ঝড়ে বিধ্বস্ত পরিবার গুলি এই পরিষেবা পাবে সম্পূর্ণ  বিনামূল্যে বিশেষ করে যারা যশের আতঙ্কে এলাকা ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে তাদের কথা মাথায় রেখে তাদের এই পরিকল্পনা। সব মিলিয়ে একদিকে করোনা আক্রান্ত পরিবার, অন্যদিকে দুর্গতদের খাবার পৌঁছে দেয়ার জন্য তারা আজ এই শপথ নিয়েছেন।

তার পাশাপাশি বসিরহাট জেলা হাসপাতালে একটি রোগী সহায়তা কেন্দ্র উদ্বোধন করেছেন, সেখান থেকে বিভিন্ন গ্রাম থেকে হাসপাতালে চিকিৎসা করতে আসছেন যারা তারা ঠিকমতন পরিষেবা পাচ্ছেন কিনা, যদি না পান তারা এই সহায়তা কেন্দ্রে এসে যোগাযোগ করলে তাদের সমস্যা সমাধান করতে এগিয়ে আসবেন এই সহায়তা কেন্দ্র। বিধায়কের এই ধরনের উদ্যোগ দেখে হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে আসার পরিজন  থেকে স্থানীয় বাসিন্দারা সাধুবাদ জানিয়েছেন।