সিএএ, শাহিনবাগ, জামিয়া, জেএনইউ আবহেই শুরু দিল্লির বিধানসভা ভোট

85

ওয়েব ডেস্ক, ৮ ফেব্রুয়ারিঃ সিএএ, শাহিনবাগ, জামিয়া, জেএনইউ আবহেই আজ শুরু হল দিল্লির কুর্সি দখলের লড়াই।দিল্লি নির্বাচনের প্রাক্কালেই একাধিক ইস্যু নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হয়েছে অন্যান্য দলগুলি। ২০১৫ সালের মতো এবারের দিল্লি নির্বাচনেও কি উঠবে ঝাড়ু-ঝড়? ইতিমধ্যেই আপ, বিজেপি ও কংগ্রেসের ত্রিমুখী ভোটযুদ্ধের দামামা বেজে উঠেছে। দিল্লি বিধানসভায় মোট ৭০ আসনের লড়াই শুরু আজ।দিল্লিতে ভোট হবে সকাল আটটা থেকে সন্ধ্যা ছ’টা পর্যন্ত।

এবারের ভোটে সব চেয়ে বেশি প্রার্থী দিয়েছে আম আদমি পার্টি৷ আপ এবারে গতবারের রেকর্ড (৬৭ আসন জয়) ভাঙতে চাইছে৷ এদিকে বিজেপি ৬৬ আসনে প্রার্থী দিয়ে অনন্ত ৪৫টি আসন জেতার লক্ষ্যে রয়েছে যাতে ভালমতো দিল্লিতে সরকার গড়া যায়৷ ফলে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে কেন্দ্রের তাবড় তাবড় মন্ত্রীরা, যোগী আদিত্যনাথ সহ বিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা সামিল হয়েছিল ৷ শরিক দলের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশকুমারকেও প্রচারে নামিয়েছে৷

কংগ্রেস ও বিজেপি উভয়েই ৬৬ জন করে প্রার্থী দিয়েছে। মঙ্গলবার ১১ ফেব্রুয়ারি ফল বের হবে। দিল্লির ৭০ আসনের ভোটের জন্য উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা সীমান্তের একাধিক বুথ সহ স্পর্শকাতর এলাকায় রয়েছে বাড়তি নজরদারি। ভোট হবে মোট ১৩ হাজার ৭৫০টি বুথে৷ ভোটে লড়ছেন ৬৭২ জন প্রার্থী এবং ভোটার হল ১ কোটি ৪৭ লক্ষ ৮৬ হাজার ৩৮২ জন ৷ সংক্রিয় থাকছে প্রায় ৪০ হাজার পুলিস, ১৯০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং ১৯ হাজার হোমগার্ড।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের দিল্লি বিধানসভা ভোটে বিজেপি, কংগ্রেসকে ধরাশায়ী করেছিল অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ)। ৭০টি আসনের মধ্যে তাঁরা জিতেছিল ৬৭টি আসনে। সেখানে মোদী-শাহের বিজেপি জেতে ৩টি আসনে। তবে, গত বছর লোকসভা নির্বাচনে দিল্লির ৭টি লোকসভা আসনের সবগুলিতেই জয় লাভ করে পদ্ম শিবির।

কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের পর মহারাষ্ট্র এবং ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতার কুর্সি লাভের স্বপ্ন সফল হয়নি বিজেপি।এ মুহুর্তে সিএএ-বিরোধী আন্দোলনে জ্বলতে থাকা দিল্লি কি জয় করতে পারবেন মোদী-শাহ? আজ সেই লড়াইয়েই তাকিয়ে গোটা দেশ।