আরএসএসের সদর দপ্তরে যাওয়া নিয়ে বিজেপিতে যোগদানের জল্পনা মিঠুন চক্রবর্তীর

288

ওয়েব ডেস্ক, ৪ অক্টোবরঃ চলচ্চিত্র জগত এবং রাজনীতিতে বেশ কিছুদিন ধরেই তাকে দেখা যাচ্ছিল না। অনেকদিন ধরেই সবকিছু থেকে কিছুটা দূরে ছিলেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। তবে বৃহস্পতিবার তার দেখা মিলল  মহারাষ্ট্রের নাগপুরে আরএসএস দফতরে।   

তৃণমূল কংগ্রেসের সেই প্রাক্তন সাংসদের সংঘের দফতরে যাওয়া নিয়ে শুরু হয়েছে নয়া রাজনৈতিক জল্পনা। আচমকা এদিন নাগপুরে সংঘের দফতরে গিয়ে আরএসএস-র তাত্ত্বিক নেতা হেডগেওয়ারের সমাধিস্থলে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মিঠুন। তারপর সঙ্ঘের দফতরে কার্যকর্তাদের সঙ্গে কিছুক্ষণ বৈঠক করেন মিঠুন চক্রবর্তী।

মাস দুয়ের আগে প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা বর্তমানে বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা মিঠুনের সঙ্গে তোলা ছবি ফেসবুক পোস্ট করেছিলেন। সেখানে ট্যাগলাইন ছিল শীঘ্র। সেই সময় মিঠুনের বিজেপিতে যোগ দান নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছিল।

অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী ছিলেন বাম জমানার দাপুটে নেতা এবং রাজ্যের মন্ত্রী সুভাষ চক্রবর্তীর ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি। তাঁর মৃত্যুর পরে ২০১১ সালে তৃণমূলের ভরা বাজারে সুভাষবাবুর স্ত্রী রমলা চক্রবর্তীর হয়ে প্রচার করতেও দেখা গিয়েছিল মিঠনবাবুকে। সেই তিনিই কয়েক বছর পরে তৃণমূলে যোগ দেন এবং ঘাস ফুলের টিকিটেই রাজ্যসভার সাংসদ হয়েছিলেন।

এরপরে চিটফান্ড কাণ্ডে মিঠুন চক্রবর্তীকে তলব করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারি সংস্থা। এই বিতর্ক থেকে রেহাই পেতে বিজ্ঞাপনবাবদ পাওয়া অর্থ ফিরিয়ে দেন তিনি। সেই সঙ্গে ত্যাগ করেন সাংসদ পদ। দলের সঙ্গে দূরত্বও বাড়িয়ে দেন তিনি।