বিজেপি নেতার বাড়ি ভাঙাকে ঘিরে উত্তপ্ত কলকাতা পুরসভার অধিবেশন, হাতাহাতিতে জড়াল তৃণমূল-বিজেপি

0
24

খবরিয়া ২৪ নিউজ ডেস্ক, ১৯ অগাস্ট, কলকাতাঃ বিজেপি নেতার বাড়ি বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় উত্তপ্ত কলকাতা পুরসভার অধিবেশন। হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়লেন তৃণমূল এবং বিজেপি কাউন্সিলররা। পুরসভার ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে শ্যামপুকুর বিধানসভা এলাকায় থাকেন বিজেপি নেতা সুনীল সিং।

বিজেপির অভিযোগ, সুনীল সিংয়ের বাড়ি বুলডোজার দিয়ে ভেঙে দিয়েছে তৃণমূল চালিত কলকাতা পুরসভা। অন্যদিকে, কর্পোরেশনের দাবি বাড়ির বেআইনি অংশ ভেঙে ফেলা হয়েছে। এই ইস্যুতেই উত্তপ্ত পুরসভার শনিবারের অধিবেশন। কলকাতা পুরসভার ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা তথা স্থানীয় বিজেপি নেতা সুনীল সিংহের অভিযোগ, তাঁর বাড়িতে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে বুলডোজ়ার চালিয়েছে তৃণমূল পরিচালিত কলকাতা পুরসভা। যদিও পুরসভার দাবি, বাড়িতে নয়, বাড়ির বেআইনি অংশ বুলডোজ়ার দিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়েছে। তা নিয়েই শনিবার পুর অধিবেশনে সরব হন বিজেপির কাউন্সিলরেরা। অধিবেশনের শেষ প্রান্তে ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সজল ঘোষ বিষয়টি তোলেন।

মালা রায় এবং মেয়র ফিরহাদ হাকিম আলাদা করে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করার কথা বলেন। অধিবেশন শেষ হতেই বিজেপি কাউন্সিলর ক্লাবে সাংবাদিক বৈঠক ডাকে। বৈঠক কিছুক্ষণ চলার পরেই সেখানে তৃণমূল কাউন্সিলর মহেশ শর্মা এসে বলেন, শুধুমাত্র কাউন্সিলরদের জন্য এই ক্লাব। বিজেপির জেলা সভাপতি এখানে সাংবাদিক বৈঠক করতে পারেন না।

পালটা বিজেপির বক্তব্য, তাঁরা প্রত্যেকেই করদাতা। সুতরাং সেখানে সাংবাদিক বৈঠক করার অধিকার সকলেরই আছে। বচসা গিয়ে দাঁড়ায় হাতাহাতির পর্যায়ে। এর মাঝেই বিজেপি কাউন্সিলর সজল ঘোষের কেন্দ্রীয় নিরাপত্তাবাহিনীর জওয়ানরা তৃণমূল কাউন্সিলরের গায়ে হাত তোলে বলে অভিযোগ। কাউন্সিলর ক্লাবে আসেন একাধিক তৃণমূল কাউন্সিলর। তৃণমূলের দাবি, বিজেপি কাউন্সিলর সজলের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানেরা তাঁদের উপর চড়াও হয়ে মারধর করেছেন। একে-৪৭ রাইফেল দিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখানো হয়েছে।

অভিযোগ নিয়ে তৃণমূল কাউন্সিলরেরা মেয়র ফিরহাদ এবং চেয়ারপার্সন মালার দ্বারস্থ হন। তাঁদের আবেদন, পুরসভা চত্বরে কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রবেশ যেন নিষিদ্ধ করা হয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন চেয়ারপার্সন মালা। সবমিলিয়ে এদিন দুপুরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কলকাতা পুরসভা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here