বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কলয়া ব্লক চালু হবে বাংলায়, ১ লক্ষ কর্মসংস্থানের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

28

ওয়েব ডেস্ক, ১১ সেপ্টেম্বরঃ বাংলায় এক লক্ষ কর্মসংস্থানের ঘোষণা করে দেউচা-পাঁচামিতে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কলয়া ব্লক চালু করার সিদ্ধান্তের কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ১১ হাজার একর এলাকাজুড়ে এই ব্লক থেকে প্রায় ২২০ কোটি টনের মতো কয়লা পাওয়া যেতে পারে৷ এই ব্লক চালু করা গেলে বাংলা ও দেশের অর্থনীতিক পরিস্থিতি বদলে যাবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন নবান্ন থেকে বলেন, “তিন বছরের টানাপোড়েনের পর সিদ্ধান্ত প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে। এখানে কাজ শুরু হলে লক্ষাধিক মানুষের কর্মসংস্থান হবে। স্থানীয়রাই কাজের ব্যাপারে অগ্রাধিকার পাবেন। ওই এলাকায় ৪০০ পরিবারের বাস। তার মধ্যে ৪০ শতাংশ আদিবাসী সম্প্রদায়ের। সাধারণ মানুষের সঙ্গে আলোচনা করেই কাজ শুরু হবে। দেউচা-পাঁচামিতে কাজ শুরু শুরু হলে বাংলায় ১০০ বছরেও কয়লার অভাব হবে না। অন্য দিকে কেন্দ্রীয় সরকারের আয় হবে, রাজ্য সরকারে আয় হবে, লক্ষাধিক মানুষের কর্মসংস্থান হবে”।

মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, “মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে একটি কমিটি তৈরি করা হয়েছে। এর পর প্রকল্প তৈরির আগে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়ে তোলা হবে। পাশাপাশি স্থানীয় মানুষের প্রতিনিধি, পুলিশ-প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের নিয়েও একটি কমিটি ভবিষ্যতে তৈরি করা হবে”।

আগামী ৫ বছরের মধ্যে ভারতের বৃহত্তম ওই কয়লাখনি দেউচা পাঁচামি থেকে কয়লা উত্তোলনের কাজ শুরু হবে। ওই কাজের বাস্তব রূপায়ণের জন্য একটি বিশেষ কমিটিও করা হচ্ছে। সেই কমিটিতে রয়েছেন রাজ্যের মুখ্যসচিব, ভূমি দফতর, দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ-সহ একাধিক দফতরের সচিবরা। ওই কমিটি একটি সমীক্ষা করবে এলাকায়। বীরভূমের দেউচা পাঁচামি খনি এলাকায় মূলত আদিবাসীদের বাস। সেই মানুষদের যাতে সমস্যা না হয় বা কারও জায়গা নেওয়া হলে পুনর্বাসন দেওয়া যায় সেই বিষয়টি দেখবে কমিটি।