কোচবিহার পুরসভার নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ বামেদের

315

কোচবিহার, ২৮ ডিসেম্বর : কোচবিহার পুরসভায় নিয়োগ পদ্ধতির দুর্নীতির অভিযোগ আনল বামেরা।

সম্প্রতি এই পুরসভায় ৩৩ জন কর্মীকে নতুন করে নিয়োগ করা হয়েছে বলে দাবি করে পুরসভার বিরোধী দল নেতা মহানন্দ সাহা। তাঁর অভিযোগ্‌ চূড়ান্ত বেআইনি ভাবে নিয়ম নীতি না মেনে এই পুরসভায় নতুন করে নিয়োগ করা হয়েছে ৩৩ জন কর্মীকে। অথচ, অস্থায়ী কর্মীদের কোন রূপ সুবন্দবস্তো করা হয়নি। মহানন্দ বাবুর অভিযোগ, কাউন্সিলাদের পরিবারের সদস্যদের চাকুরি দেওয়া হয়েছে, ধনী ব্যবসায়ী পরিবারের সদস্যর নামও এই তালিকায় রয়েছে। চাকুরির টোপ দেখিয়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে দল ভাঙার অপচেষ্টা করা হচ্ছে বলেও তাঁর অভিযোগ। এই নিয়োগ অবৈধ বলে অভিযোগ করে এর বিরুদ্ধে শহর জুড়ে গন আন্দোলন হবে বলে তিনি হুশিয়ারি দেন। তিনি বলেন কোচবিহার পুরসভার অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বাম গন তান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষ মঞ্চ ২১ এবং ২২ জানুয়ারি শহরের বুধ থেকে বুধে পদ যাত্রা করবে এবং ২৭ জানুয়ারি পুরসভায় ঘেরাও করা হবে বলে তিনি জানান। শনিবার কোচবিহার ফরওয়ার্ডব্লক কাৰ্যালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মহানন্দ বাবু বলেন এই নিয়োগের ক্ষেত্রে বহু টাকার লেন দেন হয়েছে বলে আমরা আশঙ্ক প্রকাশ করছি। বিষয়টি নিয়ে আইনি পথে যাবার কথাও বলেন তিনি ।

যদিও মহানন্দ সাহার এই অভিযোগকে তেমন ভাবে আমল দিতে রাজি নয় কোচবিহার পুরসভার পুরপতি ভূষণ সিং। তিনি বলেন এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সরকারী নিয়ম মেনেই এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান ভূষণ বাবু। তিনি বলেন মহানন্দ বাবুরা এই বিষয়টি নিয়ে নোংরা রাজনীতি শুরু করেছেন। দীর্ঘদিন বাদে কোচবিহার পুরসভা নিয়োগ হল, বেশ কিছু যুবক যুবতির ভবিষ্যৎ তৈরি হয়েছে। এটা মহানন্দ বাবুদের পছন্দ হচ্ছে না। প্রাসঙ্গক্রমে, তিনি বলেন আগামী দিনে আরও কর্মী নিয়োগ করা হবে এই পুরসভায়।