পিএইচডিতে কোর্সে দুর্নীতি অভিযোগ, বিক্ষোভ পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ে

651

কোচবিহার,১৬ অক্টোবরঃ পিএইচডিতে সুযোগ পাইয়ে দেবার নাম করে দুর্নীতির অভিযোগে তুলে আন্দোলনে সামিল হল ছাত্রছাত্রীরা। বুধবার পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে এই আন্দোলন সংগঠিত হয়। এদিন ৫ দফা দাবির ভিত্তিতে রেজিস্ট্রার, ডিন ও কোচবিহারের জেলাশাসককে একটি স্বারকলিপিও দেয় তাঁরা।

আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীরা জানায়, সংস্কৃত বিষয়ে এখানে পিএইচডি করা যাবে বলে গত ২২ জুলাই একটি বিজ্ঞপ্তি জারি কড়া হয়েছিল। এতে বলা হয়েছিল ইউজিসি গাইড লাইন অনুসারে ১০ আগস্টের আগে যাঁরা মাস্টার ডিগ্রি শেষ করেছেন, তাঁরাই পিএইচডিতে আবেদন করার সুযোগ পাবে, কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে ১০ আগস্টের বেশকিছুদিন পরে যাঁদের মাস্টার ডিগ্রির ফল বের হয়েছে তাঁরাও সেই তালিকায় সুযোগ পেয়েছেন।

তাঁরা আরও অভিযোগ করে বলেন, একই তারিখে দুটি নামের তালিকা প্রকাশ করায় বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে। গত ১ অক্টোবর পিএইচডির জন্য একটি ১৪ জনের নামের তালিকা প্রকাশ করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এক ঘণ্টা যেতে না যেতেই ২৭ জনের নামের দ্বিতীয় তালিকা প্রকাশ করা হয়। পদ্ধতি গতভাবে ত্রুটি অভিযোগ তুলে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার কথা বলেন তাঁরা।

এবিষয়ে কোচবিহার পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দেবকুমার মুখোপাধ্যায় বলেন, আমি এই মুহূর্তে বাইরে রয়েছি। ছাত্রছাত্রীরা যে অভিযোগ আনছে তা খোঁজ নিয়ে দেখা হবে।