কোচবিহারে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুন, অভিযুক্ত স্বামী সিভিক ভলেন্টিয়ার

5670

কোচবিহার, ৫ অক্টোবরঃ পারিবারিক বিবাদের জেরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল এক সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে। মৃত ওই গৃহবধুর নাম রোকেয়া বিবি(২৬)। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার ১নং ব্লকের চিল্কিরহাট কুর্শামারি এলাকায়। ওই ঘটনার খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশ। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তেরর জন্য পাঠান হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, নাজিরহাটের শিকারপুর এলাকার রোকেয়া বিবির বিয়ে হয় পেশায় সিভিক ভলেন্টিয়ার মিঠু মিয়া সাথে বছর দুয়েক আগে। তাদের ৭ মাসের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বিয়ের কয়েকমাস পর থেকেই তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন সাথে বিবাদ বাঁধে। তারপর থেকে ঠিকমত শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সাথে বনি বনতা নেই। তা নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে চলে মতের অমিল। দীর্ঘ কয়েক মাস কেটে যাওয়ার পর হঠাৎ গতকাল তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় বাড়ির লোকজন। তারপর এই খবর সর্বত্রে ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজনের ভিড় জমতে শুরু করে তাদের বাড়িতে। পরে সেই ঘটনার খবর পেয়ে গৃহবধুর পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলের ছুটে যান।তাদের অভিযোগ, তাদের মেয়েকে শ্বাসরোধ করে প্রথমে খুন করা হয়। পরে ওই দেহ ঝুলিয়ে দেওয়ার হয় বলে জানান মৃতার পরিবারের লোকজন।

মৃতা রোকেয়া বিবির ভাই বাবুল হাসান বলেন, বিয়ের পরে তাদের দুজনের সংসার ভাল ভাবেই কাটছিল। কিন্তু তাদের সংসারের অশান্তি বাধছিল আরও এক মহিলাকে নিয়ে। ওই ঘটনার জেরেই গতকাল রাতে আমার দিদিকে প্রথমে শ্বাসরোধ করে খুন করে পরে তাকে ঝুলিয়ে দেয় ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার মিঠু মিয়া। অভিযোগ, সে অন্য কোন মেয়ের সাথে পরকীয়া লিপ্ত রয়েছে। এর প্রতিবাদ করতেই তাকে এভাবে মৃত্যু হল।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মৃতা ওই মহিলার নাম রোকেয়া বিবি। তার স্বামী মিঠু মিয়া কোচবিহার কোতোয়ালি থানার সিভিক ভলেন্টিয়ারের কর্মরত রয়েছে। তার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ উঠেছে। পরিবারের পক্ষ থেকে মৌখিক অভিযোগ করা হয়েছে। ওই গৃহবধুর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠান হয়েছে। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।