বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন সিপিআইএম নেতা

170

পার্থ দাস, বীরভূম: বীরভূমের দাপুটে সিপিএম নেতার টুকরো টুকরো দেহাংশ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। ঘটনাটি ঘটেছে নানুরের বাসাপাড়া এলাকায়। মৃত ওই সিপিএম নেতার নাম সুভাষচন্দ্র দে। জানা গেছে, শুক্রবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন তিনি। আজ সকালে দুবরাজপুর থেকে উদ্ধার হয় তাঁর বস্তাবন্দি দেহাংশ। বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে। এই সুভাষচন্দ্র ছিলেন সূচপুর গণহত্যায় অন্যতম অভিযুক্ত। ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে সুভাষচন্দ্রের বান্ধবী ও তাঁর স্বামীকে।

অভিযোগ, সুভাষচন্দ্র দুবরাজপুরের খোঁজ মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা সোনালী বিবি সঙ্গে তার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। শুক্রবার রাতে সুভাষকে তার বাড়িতে দেখতে পায় সোনালির স্বামী। তারপর সন্দেহের বসে সোনালী স্বামী মতিউর রহমান তাকে খুন করে বলে অভিযোগ।

পুলিশের দাবি, জেরায় মতিউর জানিয়েছেন প্রথমে লোহার রড দিয়ে সুভাষের ঘাড়ে আঘাত করে সে। এরপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে হাত পা কেটে ফেলে। দেহ টুকরো করে দুই চটের ব্যাগে ভরে বাঁশ বাগানের পাশে ও অপর ব্যাগটি সুভাষের বাইকে চাপিয়ে  নয় কিলিমিটার দূরে গিয়ে অজয় নদীর জলে ভাসিয়ে দেয় মতিউর। এরপর বাইকটি রেখে আছে সিপিএম নেতার বাড়ির কাছে বেসরকারি পলিটেকনিক কলেজের সামনে। ওই ঘটনার জেরে মতিউর ও তার স্ত্রী সোনালীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বীরভূম পুলিশ।