এবার গণপিটুনির শিকার হলেন গোয়েন্দা আধিকারিক, গ্রেফতার ২ যুবক

484

ওয়েব ডেস্ক, ১০ অক্টোবরঃ রাজ্য বিধানসভায় গণপিটুনি রুখতে বিল পাস করার পরও একের পর এক গণপিটুনির  ঘটনা ঘটেই চলেছে। এবার গণপিটুনির শিকার হলেন এক গোয়েন্দা আধিকারিক। রাজ্য পুলিশের গোয়েন্দা আধিকারিককে থানার কাছেই তাকে কয়েকজন মদ্যপ যুবক মিলে বেধড়ক মারধর করে। এমনকি মারধর করার পর তাকে প্রাণনাশের হুমকিও দেয় তারা। ঘটনাটি ঘটেছে, বনগাঁ থানার খুব কাছের মতিগঞ্জ এলাকায়। আক্রান্ত ওই গোয়েন্দা আধিকারিকের অভিযোগে ইতিমধ্যেই ২ যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের নাম প্রসেনজিৎ কুণ্ডু ও সঞ্জয় বিশ্বাস।

জানা গিয়েছে, বিজয় দশমীর রাতে ওই গোয়েন্দা আধিকারিক মতিগঞ্জ এলাকায় ইছামতী নদীর ওপর রায়ব্রিজে সাদা পোশাকে কর্তব্যরত অবস্থায় ছিলেন। সেই সময় অভিযুক্ত যুবক প্রসেনজিৎ কুণ্ডু মদ্যপ অবস্থায় দ্রুত গতিতে বাইক চালিয়ে যাওয়ার সময় কর্তব্যরত ওই গোয়েন্দা আধিকারিককে ধাক্কা মারে। দ্রুতগতির গাড়ির ধাক্কায় ওই আধিকারিক রাস্তার পাশেই ছিটকে পড়েন। তৎক্ষনাত ওই গোয়েন্দা আধিকারিকের সহকর্মীরা এর প্রতিবাদ করলে ওই যুবক তার এক বন্ধুকে ফোনে ডেকে নেয়।

মদ্যপ ওই যুবকের সঙ্গে গোয়েন্দা পুলিশের কর্মীদের তীব্র বাদানুবাদ চলতে থাকে। এরই মধ্যে অভিযুক্ত দুই যুবকের সহপাঠী জনা কুড়ি অজ্ঞাত পরিচয় যুবকের দল ঘটনাস্থলে হাজির হয় লাঠি বাঁশ নিয়ে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই কর্তব্যরত সাদা পোশাকের পুলিশ কর্মীদের বেধড়ক মারধর করে অভিযুক্ত দুই যুবক ও তার সহপাঠীরা।

পাশাপাশি চলতে থাকে প্রাণ নাশের হুমকি। পথ চলতি মানুষের চেষ্টায় কোনো রকমে রক্ষা পান পুলিশ কর্মীরা। গুরুতর জখম অবস্থায় আহত তিন পুলিশ কর্মীকে নিয়ে যাওয়া হয় বনগাঁ মহাকুমা হাসপাতালে। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। এরপরেই আক্রান্ত পুলিশ কর্মীদের অভিযোগে রাতেই অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশিতে নামে বনগাঁ থানার পুলিশ৷ গ্রেফতার করে দুই যুবককে।