যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়কাণ্ডে এবিভিপির মিছিলকে ঘিরে ধুন্ধুমার

27

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ সেপ্টেম্বরঃ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্তার অভিযোগ তুলে প্রতিবাদ আন্দোলনে শামিল হল এবিভিপি। আর এই কর্মসূচিকে ঘিরে ধুন্ধুমার যোধপুর পার্কে। সোমবার গোলপার্ক থেকে মিছিল করে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত যাওয়ার কথা এবিভিপির। কিন্তু মিছিল যোধপুর পার্কে পৌঁছতেই শুরু হয় গোলমাল।পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন এবিভিপির সদস্যরা।এরপরই পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন তাঁরা। এবিভিপির সদস্যরা গার্ড ওয়াল ভাঙার চেষ্টা করেন। শুরু হয় ইট বৃষ্টি। ইটের ঘায়ে আহত হন কয়েকজন পুলিশকর্মী। এরপরই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে লাঠি চালায় পুলিশ।এবিভিপির দাবি, আহত হয়েছেন তাদের সাত সমর্থক।মিছিল এগোতে না পেরে যোধপুর পার্কেই অবস্থান বিক্ষোভে বসেন বিজেপি সমর্থিত ছাত্র সংগঠনের সদস্যরা।

অপরদিকে, এবিভিপির কর্মসূচির পালটা জমায়েত শুরু হয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে। পড়ুয়াদের পাশাপাশি অধ্যাপকরাও এ দিন ক্যাম্পাসের চার নম্বর গেটের কাছে জমায়েত করেন। পড়ুয়ারা যাতে কোনও রকম প্ররোচনায় পা না দেন, সেই কারণেই রাস্তায় রয়েছেন অধ্যাপকরা।

অধ্যাপক সংগঠন জুটার সাধারণ সম্পাদক পার্থপ্রতিম রায় বলেন, ছাত্ররা যাতে প্ররোচিত হয়ে কোনও ভুল পদক্ষেপ না করে ফেলে, তার উপর আমাদের লক্ষ্য থাকবে।’ শিক্ষাকর্মীরা জানিয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার খাতিরেই প্রবেশদ্বারে দাঁড়িয়ে আছেন তাঁরা। কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তাঁরা সচেষ্ট হবেন।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবারই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে ঘেরাও করে রাখেন একদল পড়ুয়া। সেই ঘটনায় উত্তপ্ত হয় রাজ্য রাজনীতি। ঘটনায় জড়িয়ে পরেন স্বয়ং রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। তিনি নিজে চলে যান বিশ্ববিদ্যালয়ে। এর পরই প্রকাশ্যে আসে কয়েকজন ছাত্রছাত্রীর সঙ্গে মারমুখী দেবাঞ্জন বল্লভের ছবিও। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ছড়িয়ে পড়ে সেই ছবি।