মেডিক্যাল কলেজের ৬ তলা থেকে মরণঝাঁপ মানসিক রোগীর, চাঞ্চল্য

91

কলকাতা, ১৫ জানুয়ারিঃ ফের হাসপাতালে আত্মহত্যার ঘটনা। বুধবার দুপুর ১২টা নাগাদ চিকিৎসক এবং স্বাস্থকর্মীদের সামনেই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। হাসপাতালের ৬ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করলেন এক রোগী। গিয়াসউদ্দিন মোল্লা (২০)। তার বাড়ি হাওড়া জেলায়।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, বছর ২০ রেয়াজউদ্দিন মণ্ডল মাস দেড়েক ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। সেই জন্য তাঁকে কলকাতা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করানো হয়। বুধবার চিকিৎসা চলছিল হাসপাতালের সুপার স্পেশ্যালিটির নিউরো বিভাগে। সেই সময়েই হঠাৎ করে ৬ তলার জানলা থেকে ঝাঁপ দেয় রেয়াজউদ্দিন। স্বাভাবিকভাবেই হাত পা ভেঙে যায় তাঁর। চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হলে মৃত্যু ঘটে তাঁর।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, এদিন সকালে হাসপাতালের নিউরো বিভাগে রাউন্ডে যান চিকিৎসকরা। সেখানে নার্সরাও ছিলেন। তখনই হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে ওঠে গিয়াসউদ্দিন। চেঁচামেচি করতে থাকে সে। চিকিৎসক ও নার্সরা তাঁকে শান্ত করার চেষ্টা করেও কাজ হয়নি। এই পরিস্থিতিতে আচমকা নার্স ও চিকিৎসকদের হাত ছাড়িয়ে ৬ তলার জানলা থেকে ঝাঁপ দেয় ওই যুবক। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, মানসিক অবসাদের কারণেই মারণ ঝাঁপ দেন ওই রোগী।

হাসপাতাল সুপার ইন্দ্রনীল বিশ্বাস বলেন, “এই ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। এর আগে যুবকের কিছু পরীক্ষা করা হয়েছে। বাকিটা আজ হওয়ার কথা ছিল। রিপোর্ট হাতে আসার পরই শুরু হত চিকিৎসা। কিন্তু সেই সুযোগটুকুও মিলল না। ওই যুবকের ঠিক কী সমস্যা ছিল, তা বোঝার আগেই সব শেষ হয়ে গেল।”