প্রতিমা বিসর্জনে মানুষের ঢল সোনামুখীতে

36

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ কালীক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত বাঁকুড়ার প্রাচীন পৌরশহর সোনামুখী। ছোট বড় মিলিয়ে কয়েকশ কালীপূজা হয় সোনামুখীতে। প্রত্যেক কালির কিছু না কিছু ইতিহাস রয়েছে।এর মধ্যে সোনামুখীতে সরকারি লাইসেন্স প্রাপ্ত কালি রয়েছে ১৯ টি।

সোনামুখীর কালী ভাসান বরাবরই গোটা বাঁকুড়া জেলায় নজরকাড়া। সোনামুখী শহর মায়ের মূর্তি নিয়ে পরিক্রমা করা হয়। আর কালি বিসর্জনকে কেন্দ্র করে সোনামুখী শহরে তৈরি হয় কার্নিভাল।সোনামুখীর সকল মানুষ এই ভাষানকে কেন্দ্র করে আনন্দ উল্লাসে মেতে ওঠেন। শুধুমাত্র সোনামুখী নয়, সোনামুখীর আশেপাশের গ্রামগঞ্জ থেকেও সাধারণ মানুষ আসেন এই ভাসান দেখতে।

তবে এই ভাষণকে কেন্দ্র করে যাতে কোন রকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি না হয় তার জন্য মোতায়েন থাকে বিশাল পুলিশবাহিনী। এদিন সোনামুখীর অলিগলিতে চলে পুলিশের বিশেষ নজরদারি।