মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৮ প্রাক্তন ভারতীয় নৌসেনা আধিকারিককে মুক্তি দিল কাতার

0
40

খবরিয়া ২৪ নিউজ ডেস্ক, ১২ ফেব্রুয়ারি, নয়াদিল্লি: মৃত্যুদণ্ডে সাজাপ্রাপ্ত ৮ প্রাক্তন ভারতীয় নৌসেনা আধিকারিককে মুক্তি দিল কাতার। গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে গত বছর মৃত্যুদণ্ডের সাজা ঘোষণা করেছিল কাতার আদালত। ভারত সরকারের  অনুরোধেই প্রথমে মৃত্যুদণ্ডে স্থগিতাদেশ, আর তারপর আটজনকে সম্পূর্ণ মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কাতার ।

সোমবার ভারতের বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছে, ওই আট জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁদের মধ্যে সাত জন ইতিমধ্যে দেশে ফিরেও এসেছেন। এই ঘটনাকে মোদি সরকারের কূটনীতির বড় জয় বলেই মনে করা হচ্ছে। সোমবার বিদেশ মন্ত্রকের তরফে একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, ‘‘কাতারের সংস্থায় কর্মরত আট প্রাক্তন নৌ সেনা আধিকারিককে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কাতার। আমরা এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। ওঁদের মধ্যে সাত জন ইতিমধ্যে দেশে ফিরেছেন।’’

২০২২ সালের অগস্ট মাসে এই আট জন আধিকারিককে আটক করেছিল কাতারের গোয়েন্দা সংস্থা। তাঁরা কাতারের বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ছিলেন। তাঁদের বিরুদ্ধে ইজ়রায়েলে চরবৃত্তির অভিযোগ উঠেছিল। কাতারের উন্নত সাবমেরিনগুলির বিষয়ে তাঁরা ইজরায়েলকে তথ্য পাচার করেন বলে অভিযোগ।

আট আধিকারিক হলেন, ক্যাপ্টেন নভতেজ সিংহ গিল, ক্যাপ্টেন বীরেন্দ্র কুমার বর্মা, ক্যাপ্টেন সৌরভ বশিষ্ঠ, কমান্ডার অমিত নাগপাল, কমান্ডার পূর্ণেন্দু তিওয়ারি, কমান্ডার সুগুণাকর পাকালা, কমান্ডার সঞ্জীব গুপ্তা এবং নাবিক রাজেশ। তাঁদের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছিল কাতারের আদালত।

আদালতের এই নির্দেশ আসার পর মৃত্যুদণ্ডের স্থগিতাদেশের জন্য অভিযুক্তদের পরিবার ভারত সরকারের কাছে আবেদন জানায়। এরপর কাতারের প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই আবেদনের ভিত্তিতে মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। ভারত সরকারের তরফে কাতারের আদালতে আনুষ্ঠানিক ভাবে সাজা পুনর্বিবেচনার আর্জি জানানো হয়। তার পরেই ওই আধিকারিকদের মুক্তির সিদ্ধান্ত নেয় কাতার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here