পারিবারিক বিবাদের জেরে কাকুকে খুনের চেষ্টা ভাইপোর বিরুদ্ধে

23

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদা: পারিবারিক বিবাদের জেরে কাকুকে সাবল দিয়ে মেরে খুনের চেষ্টা ভাইপোর। ঘটনায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় আক্রান্ত কাকা চিকিৎসাধীন হাসপাতালে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার মানিকচক থানার লালবাথনী গ্রামে। স্থানীয় লোকজন আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে মানিকচক গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

তবে আঘাত গুরুতর থাকায় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। বর্তমানে সেখানেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় চলছে তার চিকিৎসা। ওই ঘটনায় আক্তান্তের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত  ভাইপো ও আক্রান্তের স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,আক্রান্ত ব্যক্তির নাম রাম সরকার(৪৫)। তার বাড়ি লালবাথনী গ্রামে। অভিযুক্ত  ভাইপো মনোজ সরকার। জানা গেছে, রাম সরকার তার স্ত্রী বন্দনা সরকারের ওপর বছর খানেক ধরেই অত্যাচার চালাতো। মাঝে স্ত্রী চলে যায় বাপের বাড়ি। মাস খানেক আগে স্ত্রী ফিরে আসলে বাড়িতে ঢুকতে দেয়নি রাম সরকার। এরপরই স্ত্রী চার সন্তানকে নিয়ে আশ্রয় নেয় ভাস্তা মনোজ সরকারের বাড়িতে। এই নিয়ে ভাস্তার সঙ্গে স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে এই সন্দেহে রোজ রাম সরকার বাড়িতে অশান্তি চালাতো।

সোমবার সকালে আবারও শুরু হয়ে যায় অশান্তি। তখনই কাকা রাম সরকারের ওপর সাবল দিয়ে আঘাত করে ভাস্তা মনোজ সরকার বলে অভিযোগ। তার মাথায় একাধিক আঘাত করা হয়। রাস্তায় রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পরে কাকা। স্থানীয় মারফত খবর পেয়ে মানিকচক থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আক্রান্ত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে মানিকচক গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

তবে আঘাত গুরুতর থাকায় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। বর্তমানে সেখানেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় চলছে তার চিকিৎসা। কাকাকে সাবল দিয়ে মারধরের কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত ভাইপো। এদিকে পুলিশ অভিযুক্ত ভাইপো মনোজ সরকার ও আক্রান্তের স্ত্রী বন্দনা সরকারকে আটক করেছে। সাথে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।