সহবাস করলে কি উপকার বা কি অপকার হয়, জেনে নিন

3412

ওয়েব ডেস্ক, ১১ অক্টোবরঃ সহবাস, এই বিষয়টি প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক নারী বা পুরুষই করে থাকে। যে কোনও সময় যে কোনও মুহূর্তে। এটাই স্বাভাবিক, কিন্তু কতদিন পর পর সেই সহবাস করা উচিত, তা অনেকেরই জানা নেই। এই বিষয়টি আমাদের সকলেরই জানতে ইচ্ছা করে, কখন কিভাবে এই সহবাস করা উচিৎ।  এই সব প্রশ্নের উত্তর অবশ্যই প্রত্যেকেরই জানতে ইচ্ছা করে। কারণ আপনার বিবাহিত জীবন যতই সুখের হোক, এ সম্পর্কে জ্ঞান না থাকলে পরবর্তী জীবনে আপনাকে নানান সমস্যার সন্মুখীন হতে হবে।  

মূলত, একজন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ বা নারী যখন শারীরিক ও মানসিক দিক থেকে প্রানোছল অবস্থায় থাকেন তখনই তাঁদের মধ্যে শারীরিক মিলন হতে পারে। দু’জনের মধ্যে একজন যদি শারীরিক ও মানসিক ভাবে প্রস্তুত না থাকেন তবে তার সহবাস না করাই ভালো। সেক্ষেত্রে আগ্রহী ওই ব্যক্তির শারীরিক ও মানসিক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই এই সহবাস আপনি কোন বয়সে করবেন, দিনে কতবার করেন তা জানা আমাদের অত্যন্ত জরুরি। তাই আপনি কোন বয়সে কতবার করবেন তা জেনে নিন:

সহবাসের মুহূর্ত

একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ১৮ থেকে ২৯ বছরের বিবাহিত দম্পতিরা বছরে গড়ে ১১২ বার শারীরিক মিলন করে থাকেন। অন্যদিকে, ৩০ থেকে ৩৯ বছর বয়সী দম্পতিরা বছরে গড়ে ৮৬ বার যৌনমিলন করে থাকে। পাশাপাশি ৫০ থেকে ৫৯ বছর বয়সী দম্পতিরা বছরে ৬৯ বার শারীরিক মিলন করেন।

বিজ্ঞানভিত্তিক সূত্র অনুযায়ী, মাত্রা ছাড়ানো সহবাস যেমন দেহের ক্ষতি করে। তেমনি কম সহবাসও ক্ষতি করে শরীর ও মনের। যেন একে অপরের পরিপূরক। কয়েকটি গবেষণা থেকে পাওয়া অনুযায়ী জানা গেছে, যে সব দম্পতি সপ্তাহে অন্তত দুবার সহবাস করেছে তাঁদের হৃদপিণ্ড অনেক ভালো সহবাস না করা ব্যক্তিদের থেকে।

মানসিক উৎকন্ঠা বা স্ট্রেস থেকে জন্ম নেয় উচ্চ রক্তচাপ, যা হৃদপিণ্ডের পক্ষে বিশেষ ক্ষতিসাধন করে৷ যা হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়। আর এই মানসিক চাপ কমাতে সেক্সের থেকে ভালো ওষুধ আর কিছু নেই। এছাড়াও নিয়মিত সহবাস আপনার শরীরকে ফিট রাখে, ত্বক উজ্বল করে, ওজন কমায়, পাশাপাশি রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, পাশাপাশি আমাদের বার্ধক্যকেও পিছিয়ে দেয়। সহবাস করলে ঘুমও ভালো হয়। ফলে আপনার সারা শরীর পর্যাপ্ত ভাবে বিশ্রাম পায় ৷