পকেটমার সন্দেহে কোচবিহার বড়দেবী বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার চার পকেটমার

829

কোচবিহার ৬ অক্টোবরঃ ‘চোরে না শোনে ধর্মের কাহানী’। মহাষ্টমীর বড় দেবীর পূজায় সাধারণ ভক্তের মধ্যে একটা অতি উৎসাহ লক্ষ করা যায় প্রতিবছরই। এবারও তার খামতি ছিল না। রবিবার অষ্টমী পুজার এইদিনেও দেবী বাড়ি পূজা অঙ্গনে ছিল উপচে পরা ভিড়। আর এই ভিরের মাঝেই ঘাপটি মেরেছিলেন তারা।

ভক্ত সেজে সাধারণ মানুষের পকেট ফাঁকা করাই ছিল তাদের উদ্দেশ্য। পূজা অঙ্গনে অতি সক্রিয়তার অভিনয় করে সাধারণ ভক্তদের মধ্যে মিশে গিয়ে পকেট সাফাই অভিযান চলছিল ভালই।কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। কথায় আছে ‘অতিভক্ত চোরের লক্ষণ’। তাই অতি সক্রিয় এই বাহিনীর প্রতি পুলিশের বিশেষ নজর পরতেই কেল্লাফতে। বড় দেবীর পূজা অঙ্গনে পুলিশের হাতে পকরাও চার পকেটমার, যাদের মধ্যে ছিল দুই মহিলা।

শারদ উৎসব উপলক্ষে গোটা কোচবিহার জেলার নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে। মোতায়ন করা হয়েছ সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ অতিরিক্ত পুলিশ। রয়েছে সাদা পোশাকের পুলিশেও। এই উৎসবের নিরাপত্তা রক্ষায় মহিলা পুলিশেরও টিম নামানো হয়েছে। মূলত মহিলা পুলিশের উদ্যোগে পকেটমার সনাক্ত করা হয়েছে বড় দেবীর পূজা অঙ্গনে । এরপর তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ।পরে দুইজন পুরুষ এবং দুইজন মহিলা পকেটমারকে গ্রেপ্তার করে কোচবিহার কোতোয়ালী থানার পুলিশ।