সংশোধনাগারে অবাধ যৌন মিলন

27548

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ সেপ্টেম্বরঃ সংশোধনাগারে আসামিকে পাঠানো হয় তার ভুল সংশোধন করতে। কিন্তু  সংশোধনাগার বা জেল যখন হয়ে ওঠে  অবাধ যৌনাচারের ক্ষেত্র তাহলে সেই বিষয়টি ভয়ানক হয়ে ওঠে। সংশোধনাগারের রক্ষীরাই অবাধ যৌনাচারের ইন্ধন জোগাচ্ছে অর্থাৎ যে রক্ষক সেই ভক্ষক। সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে  সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার এমন ঘটনাই উঠে এসছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার একটি শহর প্রিটোরিয়া সেখানে ঘটেছে এই ঘটনা। সিসিটিভি ক্যামেরাতে ধরা পড়েছে পুরো ঘটনা। ঘটনা অবশ্য একদিনের নয় বেশ কিছুদিন ধরে এটা চলে আসছে। পুলিশ যে ভিডিও সম্প্রতি রিলিজ করেছে সেই ভিডিওতে দেখা গেছে সুন্দরী কারারক্ষীরা এক ফ্লোরে আসামিদের গার্ড দেন। কোন কোন সেল থেকে আসামিরা তাদের উদ্দেশ্য কিছু ইঙ্গিত করছে। কিছু আসামি আবার টাকার লোভ দেখিয়ে তাদের যৌন মিলনের জন্য আহব্বান জানান।


ক্যামেরায় ধরা পড়ে, একটি সেলের সামনে মধ্যরাতে এক সেক্সি মহিলা কারারক্ষী এসে দাঁড়ান। তারপর নিজের হাঁটু গেড়ে বসে সেলের বাইরে থেকেই একটা কিছু তিনি মুখে নিয়ে অনবরত চুষতে থাকতে দেখা যায় থাকে। এর কিছুক্ষণ পরে সেই সেলের তালা খুলে ভিতরে প্রবেশ করে যান সেই সুন্দরী কারারক্ষী। এরপর তার সমস্ত অন্তর্বাস খুলে সেই আসামির সাথে জেলের সেলেই উদ্দাম যৌনতায় মেতে ওঠেন। তাদের সুখানুভূতির আওয়াজে তখন জেলের করিডরে কান পাতা দায়। ৩০-৪৫ মিনিট এসব চলার পরে নিজের অন্তর্বাস ও পোশাক পরে বেরিয়ে আসেন সেই রক্ষী। জেলে এরকম উদ্দ্যাম যৌনমিলনে যদি কোনও আসামী পলাতক হয় তাহলে কে দায় নেবে, এই প্রশ্ন উঠছে বিভিন্ন মহলে।