করোনা আবহের মধ্যে সুখবর,চিকিৎসক,নার্স, স্বাস্থ্য কর্মীদের ছুটি দেওয়া হবে নিয়ম মেনেইঃজানাল রাজ‍্য সরকার

545

ওয়েব ডেস্ক, ৮ আগস্টঃ সারা দেশের সাথে সাথে করোনা সংক্রমণ হু হু করে বেড়েই চলেছে রাজ্যে। আর তাতে করোনা আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির নিয়ে চাপ বাড়ছে বিভিন্ন কর্মীদের। তাই তাদের পরিষেবা স্বাভাবিক রাখতে বিপুল সংখ্যক চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ‍্যকর্মীর প্রয়োজন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে একটানা দায়িত্ব সামলে অনেকেই ছুটির আবেদন জানিয়েছেন। সেই আবেদন মঞ্জুর করা হবে কিনা, সে নিয়ে এতদিন প্রশাসনের অন্দরে টানাপড়েন চলছিল। অবশেষে রাজ‍্য সরকার জানিয়েছে, নিয়ম মাফিক ছুটি মঞ্জুর করা হবে।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, এই মূহূর্তে রাজ‍্যের সরকারি হাসপাতালে সাড়ে চার হাজার চিকিৎসক করোনা মোকাবিলার কাজে রয়েছেন। কয়েক হাজার নার্স ও স্বাস্থ‍্য কর্মী রোগী পরিষেবার কাজ চালাচ্ছেন। কিন্তু রাজ‍্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আশি হাজার ছাড়িয়েছে। প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। শুধুমাত্র কলকাতাতেই প্রতিদিন গড়ে সাড়ে ছশোর উপরে মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলোর উপর বিপুল চাপ বাড়ছে। এমনিতেই রাজ‍্যের সরকারি হাসপাতালে রোগী অনুপাতে চিকিৎসক সংখ‍্যা কম। পাশাপাশি সরকারি হাসপাতালে নার্সের সংখ‍্যা খুব কম। ছ’হাজারের বেশি স্টাফ নার্সের ঘাটতি নিয়েই পরিষেবা চালাতে হচ্ছে।তাই সরকারি হাসপাতালের পরিষেবার জন্য অনেক সময় রোগীদের দীর্ঘ অপেক্ষা করতে হয়। এ নিয়ে রোগী ও পরিজনদের একাধিক অভিযোগ আছে।

কিন্তু মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে করোনা থাবা বসাতেই সেই চাপ কয়েক গুণ বেড়ে গিয়েছে। আর পাঁচটা পরিকল্পনা মাফিক অস্ত্রোপচারের মতো এই ক্ষেত্রে দিন পেছানো সম্ভব নয়। করোনা আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে যাওয়া মানেই জরুরি ভিত্তিতে পরিষেবা দিতে হবে। তাই চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মীর প্রয়োজন আরও বাড়ছে। তাই অধিকাংশ সরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্য কর্মী কিংবা চিকিৎসক ছুটির আবেদন করলেও তা কর্তৃপক্ষ মঞ্জুর করেছেন না।

কিন্তু চিকিৎসকদের একাংশ জানাচ্ছেন, টানা কয়েক মাসের রোগীর চাপে অনেকেই শারীরিক ও মানসিক ভাবে সাময়িক বিরতি চাইছেন। তাছাড়া অনেকের পারিবারিক ও ব‍্যক্তিগত কাজ দীর্ঘদিন আটকে রয়েছে। তাছাড়া ছুটির অধিকার যে কোনও পেশার মানুষের রয়েছে। দিনের পর দিন সেই অধিকার থেকে বঞ্চিত করা যায় না।

শুক্রবার প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মী নিয়ম মাফিক ছুটি পাবেন। কোনও বাধা থাকবে না। সার্ভিস রুলের নিয়ম অনুযায়ী সরকারি হাসপাতালের যুক্ত কর্মীদের ছুটি মঞ্জুর করা হবে।

রাজ্য প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক সংগঠন সার্ভিস ডক্টর্স ফোরাম-র এক সদস্য বলেন, “একটানা দীর্ঘদিন কাজের পরে ছুটির প্রয়োজন হয়। সেটাই বিজ্ঞানসম্মত। তাই নিয়ম মেনে কর্তৃপক্ষ ছুটি দিলে, শারীরিক ও মানসিকভাবে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ‍্যকর্মীরা ভালো থাকবেন। ফলে তাঁরা আরও ভালো পরিষেবা দিতে পারবেন।”