সদ্য নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম-পদবী নিয়ে প্রশ্ন করায়, নেটিজেনদের বিদ্রূপের মুখে রাজ্যপাল

552

ওয়েব ডেস্ক, ১৭ অক্টোবরঃ সদ্য নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তুলে ফের বিতর্কের মুখে মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়। ভারতীয় তথা এক বাঙালির বিশ্ব দরবারে এমন সম্মান প্রাপ্তিতে দেশজুড়ে চলছে আনন্দ উদযাপন। এরই মধ্যে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়েও তাঁর জন্ম এবং নাম-পদবী নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়। যা নিয়ে যথারীতি বিতর্কও শুরু হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে মঙ্গলবার তথাগত বাবু লেখেন – “দুটো মৌলিক  প্রশ্ন : অভিজিৎ ব্যানার্জির জন্মস্থান কোথাও বলছে কলকাতা, কোথাও মহারাষ্ট্রের ধুলে। কোনটা? ওঁর মা মারাঠী, বাবা বাঙালি, প্রয়াত দীপক ব্যানার্জি ।মহারাষ্ট্রে নামের মাঝখানে পিতৃনাম বসাবার প্রথা আছে।তাহলে ওঁর নামের মাঝখানে ‘বিনায়ক’ কেন, ‘দীপক’ হওয়া উচিত ছিল !”

ট্যুইটারে এই প্রশ্ন আসার সঙ্গে সঙ্গেই তথাগত বাবুর বিরুদ্ধ সমালোচনা শুরু হয়ে যায় ট্যুইটারে। তাঁর এই ট্যুইটের উত্তরে জনৈক ওয়াসিম করিম লেখেন – “হ্যাঁ এগুলো নিয়ে ভাবুন বাকি তো আপনার চিন্তা শক্তির বাইরে তা তথাগত বাবু হাঁসেরা গরুরা কি করে অক্সিজেন দেয়,বিদ্যাসাগর কখন সহজ পাঠ লিখেছিলেন এগুলো নিয়েও একটু আধটু টুইট করুন।। না ওই জাতি ধর্ম বর্ন এসব দেখে বেড়াবেন শুধু।”

আরও এক নেটিজেন লেখেন – “তথাগত রায় অশিক্ষিত।কারন টা খুব সহজ বিবাহ সূত্রে বাঙালি  কোনো গর্ভবতী মহিলা যদি মহারাষ্ট্র বাপের গিয়ে সন্তান প্রসব করেন তাহলে তার সন্তান কখনও মারাঠি হয়না। অশিক্ষিতের মতো প্রশ্ন। রাজ্যপাল কেন হয়েছে ও । ফালতু লোক।”

সম্প্রতি বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্কিত পোস্ট করে বঙ্গ রাজনীতিতে নতুন করে আলোচনার কেন্দ্র উঠে এসেছেন রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তথাগত রায়। বাঙালি মেয়েদের ডান্স বারে নাচ থেকে শুরু ইস্টবেঙ্গল বা যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কাণ্ড, কখনও আবার তৃণমূলের বিরোধিতা করে সোশ্যাল মিডিয়ায় তথাগত রায়ের বিভিন্ন পোস্ট বিতর্ক তৈরি করেছে। কখনও আবার গান্ধীর বিরোধিতা করে সরাসরি হিংসার পক্ষে সওয়াল করেছেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল।