স্ত্রীকে দিয়ে বানিয়েছে মধুচক্রের আসর,আর সেই আসরে এসে গ্রেপ্তার ৫

6874

ওয়েব ডেস্ক, ২০ অক্টোবর: সর্বত্রে কানপাতলে শোনা যায় মধুচক্রের কথা। এক সময় দক্ষিণবঙ্গে রমরোমিয়ে চলছিল এই ব্যবসা। সেই পরিবেশ সম্প্রতি উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় প্রায় প্রবেশ করেই গেছে। আসলে মধুচক্রের পেছন কি কোন কারণ থাকতে পারে বলে মনে করছে অনেকে। হয়তো আর্থিক অনটন বা নাকি সমাজের নিকৃষ্ট কিছু মানুষের লালসার শিকার। তা নিয়ে হন্য পুলিশ প্রশাসন।

পুলিশ যেভাবে সারা রাজ্যে জুড়ে অভব্য কাজ থেকে মানুষকে দূরে রাখার জন্য সচেতন করছে। মনে হয় ততই এর মাত্রা বেড়েই চলছে। তা না হলে দিনে দুপুর জনবহুল এলাকায় মধুচক্র চালানোর অভিযোগ এক গৃহবধুর বিরুদ্ধে। প্রতিবেশীরা হাতে নাতে মধুচক্র ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট শহরের সাহেব কাছারী এলাকায়।

জানা গেছে, সাহেব কাছারী এলাকার বাসিন্দা পূরবী সরকারের স্বামী মারা যাওয়ার পর দ্বিতীয় বিয়ে করেন, তারপর থেকেই শুরু হয় এই ধরণের কাজ।এরপর থেকেই তিনি দ্বিতীয় স্বামীর সাথে মিলে বাড়িতে মধুচক্রের আসর বসাতেন। এর আগেও একই অভিযোগে তাদের জেলও হয় বলে জানা গেছে। জেল থেকে ছাড়া পেয়েই তারা আবার বালুরঘাট সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকার মহিলাদের নিয়ে মধুচক্রের আসর শুরু করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবেশীরা বেশ কিছু দিন ওই বাড়িতে ধরে অপরিচিত নারী পুরুষের আনাগোনা লক্ষ্য করছিলেন। ও এই মধুচক্রের আসর হাতে নাতে ধরার লক্ষ্যে ছিলেন।শনিবার আবার কিছু অপরিচিত নারী পুরুষকে ওই বাড়িতে যেতে দেখলে তারা হাতে নাতে তিনজন মহিলা ও দুই পুরুষকে ধরে ফেলে। এছাড়াও একজন পুরুষ পালিয়ে গেছে বলেও জানা গেছে। এরপর এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে অভিযুক্ত দের গ্রেফতার করে।