পণের দাবিতে গৃহবধূকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে

0
26

খবরিয়া ২৪ নিউজ ডেস্ক, ২৬ জুলাই, মালদা: পণের দাবিতে গৃহবধূকে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠলো শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। এই অত্যাচারের ঘটনার দুই দিনের মাথায় চিকিৎসারত অবস্থায় মালদা মেডিকেল কলেজে মৃত্যু হয় ওই গৃহবধুর। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মানিকচক থানার এনায়েতপুর এলাকায় ।

মৃতার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত শ্বশুর, শাশুড়ি এবং দুই ননদের বিরুদ্ধে মানিকচক থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্তরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত গৃহবধূর নাম সাবিনা ইয়াসমিন (৩৪) । তার স্বামী নাসিমুল মোমিন দিল্লিতে দিনমজুরের কাজ করেন। দম্পতির আট এবং চার বছরের দুই নাবালক ছেলেমেয়ে রয়েছে।

মৃত গৃহবধূর দিদি নুরশেদা বিবি পুলিশকে জানিয়েছেন, তাঁর বোনকে বাপেরবাড়ি থেকে ৫০ হাজার টাকা আনার জন্য দীর্ঘদিন ধরে চাপ দিচ্ছিল শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। সেই টাকা দিতে না পারায় , গত সোমবার শ্বশুর শাশুড়ি এবং দুই ননদ মিলে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে সাবিনাকে। মাথায় আঘাত লাগে তাঁর। এরপর রাতেই চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসারত অবস্থায় বুধবার সকালেই মৃত্যু হয় সাবিনার।

মৃত গৃহবধুর পরিবারের অভিযোগ, যেহেতু জামাই ভিন রাজ্যে থাকত সেইজন্য শ্বশুর বাড়িতে সাবিনার ওপর দীর্ঘদিন ধরে অত্যাচার চালাচ্ছিল শ্বশুর নাবিউল মোমিন, শাশুড়ি সাকিরুন বিবি এবং দুই ননদ তাসলিমা খাতুন ও সাইরুন খাতুন। তারাই সাবিনাকে পিটিয়ে খুন করেছে। পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতার পরিবার। পাশাপাশি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানিয়েছেন মৃতের পরিবার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here