কঙ্গনা মামলায় হৃতিককে সমন পাঠাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ, গতকাল হাজিরার নির্দেশ

53

ওয়েব ডেস্ক, ২৬ ফেব্রুয়ারীঃ অতীতের ঘা পুনরায় তাজা হয়ে উঠল। হৃতিক-কঙ্গনার বিবাদ ফের শিরোনামে উঠে আসল। এই মম্লায় ও নেকটা সময় পেরিয়ে যাবার কারণে এই দুই তারকার বিবাদের ঘটঙ্গুলি মানুষের মাথা থেকে প্রায় সড়িয়েই গেছিল। কিন্তু এদিন মুম্বই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ এই মামলার জেড়ে হৃতিক রোশন-কে একটি সনম পাঠালেন। যার দ্বারা তাকে জানানো হয় ২৭ ফেব্রুয়ারী তাকে ক্রাইম ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের সামনে হাজিরা দবারাযেতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে শেষের দিক থেকে বলিউডের খ্যাতনামা অভিনেতা হৃতিক রোশন এবং বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’ নামে পরিচিত কঙ্গনা রানাউত-এর বিবাদ শুরু হয়। এমনকি কিছু সময়ের মধ্যেই সেই বিবাদের জেড়ে দুই তারকাকেই প্রশাসনের দারস্ত হতে হয়। এই ঘটনায় কঙ্গনার অভিযোগ ছিল, মিথ্যে কথা বলে তাঁর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন হৃতিক। এমনকি হৃতিকই নাকি মেইল পাঠাতেন।  তৎকালীন সময়ে কঙ্গনার এই অভিযোগের বিরুদ্ধে হৃতিক প্রকাশ্যে কোনো আওয়াজ না তোলেননি। তবে যখন এই মামলাটি ক্রাইম ইন্টেলিজেন্স ইউনিটে স্থানান্তরিত হয় তখন হৃতিকের আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি মুম্বই পুলিশকে জানিয়েছিলেন, ২০১৬ সালে তাঁর মক্কেল মামলাটি করেছিলেন কিন্তু তা নিয়ে আজ পর্যন্ত কিছুই করা হয়নি। উলটে তাঁর মক্কেল ও তাঁর পরিবারকে মানসিক যন্ত্রণা সহ্য করতে হয়েছে এই দীর্ঘ সময় ধরে। অবিলম্বে এই মামলার উপযুক্ত তদন্তের দাবি জানিয়েছিলেন মহেশ।

এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে কঙ্গনা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, ‘আবার সেই কাঁদুনি গল্প শুরু হয়েছে, আমাদের ব্রেক-আপের এত বছর বাদেও, আর ওর ডিভোর্সের পরও জীবনে এক পা এগোতে পারেনি। কোনও মহিলাকে ডেট পর্যন্ত করেনি। আমি যখন সাহস সঞ্চয় করে ব্যক্তিগত জীবনে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি, আবার একই নাটক শুরু করেছে। হৃতিক রোশন ছোট্ট একটা সম্পর্কের জন্য আর কতদিন কাঁদবে?’ তবে এদিন হৃতিক পাঠানো সমন এর খবরের প্রসঙ্গে তিনি এখন অব্দি কোনো কিছু বলেননি।