পণের দাবীতে গায়ে কেরোসিন ঢেলে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

197

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদাঃ পণের দাবীতে গায়ে কেরোসিন ঢেলে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে পুরাতন মালদার মহিষবাথানি গ্রামের। মালদা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় গৃহবধূর। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকেরা। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। 

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে মৃত গৃহবধূর নাম রুমি বিবি (২০)স্বামী মহম্মদ তারেক। বাড়ি পুরাতন মালদার মহিষবাথানি এলাকায়। মহম্মদ তারেক পেশায় ভিন রাজ্যের শ্রমিক। জানা গিয়েছে পুখুরিয়া থানার মহারাজপুর এলাহাবাদ গ্রামের বাসিন্দা রাফিউল হকের মেয়ে রুমি বিবির সঙ্গে প্রায় দুই বছর আগে বিয়ে হয় মহম্মদ তারেকের। বিয়ের সময় মেয়ের বাবার বাড়ি থেকে মোটরবাইক, নগদ ৫০ হাজার টাকা সহ আরো কিছু পণ দেয়।

কিন্তু বিয়ের কয়েক মাস পর থেকে আরো পণের দাবী করে স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকেরা। এই নিয়ে শুরু হয় বিবাদ। গৃহবধূর উপর শুরু হয় মানসিক ও শারিরীক  অত্যাচার। এই নিয়ে গত এক মাস আগে গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে সালিশ হয়। তারপরেও আরো দুই লক্ষ টাকা পণ দাবী করে। বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে রাজী না হলে রবিবার রাতে গৃহবধূর গায়ে কেরসিন ঢেলে আগুন দিয়ে দেয়। বাঁচতে স্বামীকে জড়িয়ে ধরে।

পরিবারের ও প্রতিবেশিরা উদ্ধার করে। আগ্নিদগ্ধ হয়ে তাদের মালদা মেডিকেলে নিয়ে আসে। চিকিৎসাধীন আবস্থায় মৃত্যু হয় গৃহবধূর। সামান্য আগুনে পুড়ে ভর্তি ছিল স্বামী। স্ত্রীর মৃত্যুর খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসে গৃহবধূর বাবার বাড়ির লোকেরা। স্বামী সহ শ্বশুর ও শ্বাশুড়ির বিরুদ্ধে মালদা থানায় অভিযোগ দায়ের করে। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্তরা।