‘আমি বুঝতে পারছি না, কেন এটা করা হল, সিএএ অপ্রয়োজনীয়’: শেখ হাসিনা

603

ওয়েব ডেস্ক, ১৯ জানুয়ারিঃ সিএএ নিয়ে এবার মুখ খুললেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে ভারতের ‘অভ্যন্তরীণ বিষয়’ বললেও তার ‘প্রয়োজন ছিল না’বলে জানান হাসিনা।

এক সংবাদমাধ্যম সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘সিএএ ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। কিন্তই এই আইন তৈরির কেন প্রয়োজন হল তা বুঝতে পারছি না। এই আইনের কোনও প্রয়োজন ছিল না।’ মোদী সরকারের দাবি, ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রতিবেশী বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যেসব সংখ্যালঘু ধর্মীয় নিপীড়িতরা (হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, খ্রিষ্টান, পার্সি) ভারতে প্রবেশ করেছেন তাদের নাগরিকত্ব দিতেই সিএএ তৈরি হয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে হাসিনার মন্তব্য বেশ তাৎপর্যবাহী।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ সরকার নয়াদিল্লিকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন, ভারতে বেআইনিভাবে বসবাসকারী বাংলাদেশীদের তালিকা দিলে বাংলাদেশ সরকার তাঁদের ফিরিয়ে নিতে রাজি। কিন্তু বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা নিপীড়ণের শিকার বলে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ যে দাবি করেছিলেন, তার বিরুদ্ধে সরব হয় প্রতিবেশ দেশটি। তার পরই ১২ ডিসেম্বরের ভারত সফর আচমকা বাতিল করে দেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী।

বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রীর দাবি ছিল, বুদ্ধিজীবী দিবস এবং বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান থাকায় সফর বাতিল করেছেন তিনি। কিন্তু কূটনীতিক মহলের দাবি, সিএএ বিরোধিতা নিয়ে ভারতের অশান্ত পরিবেশ দেখে সফর বাতিল করেছেন মোমেন। এবার শেখ হাসিনা মুখ খোলায় সিএএ নিয়ে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক নতুন মাত্রা পেল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।