বৈশাখী কব্জা থেকে বের না হলে বিজেপিতে শোভনের জায়গা নেইঃ দিলীপ ঘোষ

33

ওয়েব ডেস্ক, ১০ সেপ্টেম্বরঃ বাংলা প্রেমের, পরকীয়ার নয়। অভিনেতা তথা রাজ্যে বিজেপির অন্যতম নেতা জয় ব্যানার্জি শোভন ও বৈশাখীকে কটাক্ষ করেন। এই মন্তব্যের ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, শোভন এখানেই শেষ। কারণ ওকে হাতের মুঠোয় বন্দি করে রেখেছেন বৈশাখী। সে মুঠো থেকে বের হতে না পারলে বিজেপিতে ওর কোনও কাজ নেই।

এদিন একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দিলীপ ঘোষ বলেন, ”শোভন এখন জিরো। ওর নিজের কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাই নেই। বৈশাখী ওকে পুরো কব্জা করে রেখেছে। বৈশাখীর কব্জা থেকে না বের হলে ওকে আমাদের কোনও কাজে লাগবে না।”

রোজই সংবাদমাধ্যমের সামনে বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন শোভন, বৈশাখী। তাঁদের হেনস্তা করা হচ্ছে, ভাবমূর্তি নষ্ট করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করছেন।

গতকাল বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায় এক প্রকাশ্য সভায় বলেন, ‘দেবশ্রী রায় বড় অভিনেত্রী। গোটা বাংলার মানুষ তাঁকে ভালোবাসে,পছন্দ করেন। দলে নতুন এসেছে মমতার কাছের লোক কানন মানে শোভন চট্টোপাধ্যায়। আর তাঁর সঙ্গে দলে এসেছে আনকোরা এক মহিলা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর রাজনীতিতে কোন অভিজ্ঞতা নেই। তিনি বলছেন, দেবশ্রীকে দলে নেওয়া যাবে না।’ তাতে যদি বৈশাখী চলে যান, তো চলে যাবেন। শোভন চট্টোপাধ্যায় চলে গেলে চলে যাবেন’’।

এরপরই শোভন-বৈশাখীকে বিঁধে জয় বলেন,‘‘বাংলা প্রেমের জায়গা,পরকিয়ার জায়গা নয়। পরের স্বামীকে নিয়ে সব জায়গায় উনি ঘুরবেন, এটা বাংলার মানুষ মেনে নেবে না। তাই আমরা দেবশ্রী রায়কে স্বাগত জানাচ্ছি’’। জয়ের মন্তব্যের পাল্টা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতার এক সংবাদ মাধ্যেমকে জানান, ‘‘অত্যন্ত কুরুচিপূর্ণ, নিম্নরুচির মানুষ।

প্রসঙ্গত, ১৪ অগাস্ট দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের যোগদানের দিনই ঘটনাক্রমে নাটকীয় প্রবেশ ঘটে দেবশ্রী রায়ের। দেবশ্রীকে দেখেই তীব্র আপত্তি জানান একদা দেবশ্রীর ‘বন্ধু’ শোভন চট্টোপাধ্যায়। শোভন-বৈশাখী এই ঘটনায় এতটাই ক্ষুব্ধ হন যে বিজেপি নেতৃত্বকে হুঁশিয়ারি দিয়ে শোভন জানিয়ে দেন, দেবশ্রী রায় যেদিন যোগ দেবেন, সেদিনই তাঁর (শোভন) বিজেপিতে শেষ দিন হবে। তারপর আজ দিলীপ ঘোষ এমনি মন্তব্য করেন।